Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
BJP MP

‘তোর মাথায় ঢালি!’ ছটের আগে যমুনার ঘাট ঘুরে দেখতে গিয়ে মেজাজ হারালেন বিজেপি সাংসদ

দিল্লিতে যমুনার ঘাট পরিদর্শনে গিয়েছিলেন পরবেশ। সেখানে তখন কাজ করছিলেন জল বোর্ডের কর্মীরা। তাঁদের সঙ্গেই বিবাদে জড়িয়ে পড়েন বিজেপি সাংসদ। মাথায় রাসায়নিক ঢেলে দেওয়ারও হুমকি দেন।

বিজেপির সাংসদের রোষের মুখে সরকারি আধিকারিকরা।

বিজেপির সাংসদের রোষের মুখে সরকারি আধিকারিকরা। — টুইটার থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ অক্টোবর ২০২২ ২০:৪৯
Share: Save:

ছটপুজো উপলক্ষে দেশের সর্বত্রই নদীর ঘাট পরিষ্কারের কাজ চলছে। রাজধানী দিল্লিতেও যমুনা তীরবর্তী এলাকায় চলছে সাফাই অভিযান। তেমনই এক সাফাই অভিযান ঘুরে দেখতে গিয়ে মেজাজ হারালেন দিল্লির বিজেপি সাংসদ পরবেশ বর্মা। রেগেমেগে সরকারি আধিকারিককে আঙুল উঁচিয়ে হুমকি দিলেন, মাথায় রাসায়নিক ঢেলে দেওয়ার!

Advertisement

শুক্রবার, যমুনার একটি ঘাট ঘুরে দেখতে যান পরবেশ। সেখানে তখন কাজ করছিলেন দিল্লি জল বোর্ডের কর্মীরা। জলে রাসায়নিক ছেটানোর কাজ চলছিল। আচমকাই সাংসদ গিয়ে কাজ বন্ধ করিয়ে দেন। দায়িত্বে থাকা আধিকারিককে ধরে রীতিমতো হুমকির সুরে কথা বলতে শুরু করেন। পরবেশকে বলতে শোনা যায়, ‘‘এখানে মানুষ মারার বন্দোবস্ত করছ তোমরা। আট বছর হয়ে গেল, এখনও তোমরা এই জায়গা পরিষ্কার করতে পারলে না!’’ জল বোর্ডের আধিকারিক জবাব দেন, তাঁরা প্রতি সপ্তাহান্তেই পরিষ্কারের কাজ করে থাকেন। আজ নতুন কিছু না। তাতে আরও রেগে যান বিজেপি সাংসদ। নদীর দিকে আঙুল দেখিয়ে তাঁকে বলতে শোনা যায়, ‘‘এই জলে প্রথমে তুই ডুব দিয়ে দেখা। কেমিক্যাল দিয়ে মানুষ মারবি!’’ সরকারি আধিকারিক জবাব দেন, এই রাসায়নিক গোটা বিশ্বে অনুমোদিত। এমনকি ‘ন্যাশনাল মিশন ফর ক্লিন গঙ্গা’ও এই রাসায়নিক ব্যবহার করতে নির্দেশ দিয়েছে। তার পরই পরবেশ বলে ওঠেন, ‘‘আয়, তোর মাথায় আগে এই কেমিক্যাল ঢালি। তোরা এখানে কেমিক্যাল ঢালছিস জলে আর এই জলে মানুষ ডুব দেবে! তোদের লজ্জা নেই?’’

পরে পরবেশকে যখন সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, কেন তিনি সরকারি কর্মীদের সঙ্গে এমন ব্যবহার করলেন, তখন তিনি দাবি করেন, তিনি যা করেছেন তা নিজের কথা ভেবে করেননি। মানুষের ভাল চেয়েই এমন বলেছেন। তার পরই রাজনীতিতে ঢুকে পড়ে পরবেশের বক্তব্য। তিনি বলেন, ‘‘দিল্লির আপ সরকারের এ সব নিয়ে ভাবনা নেই। কোনও মন্ত্রী দেখা করতে চান না। তাই আমরা কর্মীদের সঙ্গেই কথা বলব। প্রয়োজনে তাঁদের ধমকও দিতে পারি। দিল্লিবাসীর মুখ চেয়ে আমি ভুল কিছু করিনি।’’

কিন্তু প্রশ্ন উঠছে, এক জন জনপ্রতিনিধি কি সরকারি কর্মীদের সঙ্গে এমন ব্যবহার করতে পারেন?

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.