Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মোদীকে খোঁচা, রাহুলের অস্ত্র ম্যাক-কোক!

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ১২ জুন ২০১৮ ০৪:৩১
রাহুল গাঁধী। ছবি: পিটিআই।

রাহুল গাঁধী। ছবি: পিটিআই।

লেবুর রসে চিনি দিয়ে জল মেশানো। তাতে প্রয়োজনমাফিক নুন। তারপর বরফ দিয়ে পরিবেশন। উত্তর ভারতে এটিই প্রচলিত ‘শিকঞ্জি’ নামে।

ওবিসি ভোটের লড়াইয়ে নরেন্দ্র মোদীকে টেক্কা দিতে আজ শিকঞ্জি-তাস খেললেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী।। দিল্লিতে অন্যান্য অনগ্রসর শ্রেণির (ওবিসি, গড়পড়তায় দেশের অর্ধেকের বেশি জনসংখ্যা যে শ্রেণিভুক্ত) সম্মেলনে তিনি আজ বলেন, ‘‘কোকাকোলা কে শুরু করেছেন জানেন? তিনি আগে আমেরিকায় শিকঞ্জি বেচতেন। জলে চিনি মিশিয়ে বিক্রি করতেন। তাঁর দক্ষতা স্বীকৃত হয়েছে।.... ম্যাকডোনাল্ডসও যিনি শুরু করেছেন, তিনি আগে ধাবা চালাতেন। ফোর্ড, মার্সিডিজ, হন্ডা গাড়ির নির্মাতারাও সকলে মেকানিক ছিলেন।’’

গল্প আরও এগিয়ে নিয়ে যান রাহুল। জানান, ফ্রান্সে এক ভারতীয় ফ্যাশন ডিজাইনারকে অপমান করা হয়। রাহুল প্রথমে ভেবেছিলেন, গায়ের রঙের জন্য এই অপমান।। কিন্তু পরে জানতে পারেন, যাঁকে ভারত থেকে প্রতিনিধি করে পাঠানো হয়, তিনি পোশাক সম্পর্কে কিছু জানেনই না। এরপরেই মোদীকে একহাত নিয়ে রাহুল বলেন, ‘‘ওবিসি সম্প্রদায়ের মধ্যে যে দক্ষতা আছে, তার কদর নেই মোদী জমানায়। বিদেশে এমন কাজের কদর আছে। অথচ ভারতের পোশাকনির্মাতা বা দর্জিরা নেপথ্যেই থেকে যান। বিদেশে যান অন্য কেউ। ঠিক যেভাবে নরেন্দ্র মোদী জমানায় কৃষক, দলিত, আদিবাসী, ওবিসি, গরিব, সাধারণ শ্রেণি— কারও কদর নেই। কদর শুধু ১৫-২০ জন শিল্পপতির। যাঁরা হাজার কোটি টাকা লাগিয়ে মোদীর বিপণন করবেন। আর মোদী বাকি সকলকে উপেক্ষা করে শুধু সেই ১৫-২০ জনের জন্য সরকার চালাবেন।’’

Advertisement

উৎস কথা

কোকাকোলা

১৮৮৬ সালে মার্কিন ফার্মাসিস্ট সোডা জাতীয় পানীয় তৈরি করেন। যা পরে বিশ্ববিখ্যাত হয়

ম্যাকডোনাল্ডস

১৯৩৭ সালে ক্যালিফোর্নিয়ায় হটডগ স্ট্যান্ড চালু করেন রিচার্ড ও মরিস ম্যাকডোনাল্ড। তিন বছর পরে ম্যাকডোনাল্ডস চেন-এর সূচনা

বিজেপির ওবিসি সাংসদেরাও একান্তে তাঁর কাছে এসে মোদী-ত্রাসের কথা জানিয়েছেন, বলে আজ দাবি করেন কংগ্রেস সভাপতি। বলেন, ‘‘তাঁদের নাম বলব না। তাহলে মোদী ‘আউট’ করে দেবেন। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য, ওবিসিদের একজোট রেখে তাঁদের জন্য ব্যাঙ্ক ও রাজনীতির দরজা খুলে দেওয়া। দল ও সরকারের চাবি তাঁদের হাতেই থাকবে। বিজেপি বাসে তুলে সকলকে চুপ করিয়ে চাবি তুলে দেয় আরএসএসের হাতে। কংগ্রেস বাসের চাবি তুলে দেয় জনতাকে। এটাই ফারাক।’’ কংগ্রেসের সংগঠনের দায়িত্বে থাকা নেতা অশোক গহলৌতও জানান, দলের সংগঠনে সর্বত্র থাকবে ওবিসির প্রতিনিধি।

আরও পড়ুন: অটল-দর্শনে রাহুলই প্রথম

কিন্তু বিজেপির কটাক্ষ, রাহুল শিকঞ্জির কথা বলছেন। অথচ প্রধানমন্ত্রী যখন ‘পকোড়া’ বেচে রোজগারের কথা বলেছিলেন, তখন তা নিয়ে উপহাস করেছেন। রাহুল যদি এতই ওবিসির হিতৈষী হন, তাহলে ওবিসির সাংবিধানিক মর্যাদা দেওয়ার বিরোধিতা করছেন কেন?

আরও পড়ুন

Advertisement