×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

মোদীর মন্তব্যই অস্ত্র চিদম্বরমের

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৩:০৭
ছবি: পিটিআই।

ছবি: পিটিআই।

অর্থনীতির আইসিইউ-এ যাওয়ার অবস্থা। কিন্তু চিকিৎসার দেখভাল করছেন অযোগ্য ডাক্তাররা— এই বলে মোদী সরকারকে নিশানা করলেন পি চিদম্বরম। রাজ্যসভায় বাজেট নিয়ে বিতর্কে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামনের সামনে দাঁড়িয়েই প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর কটাক্ষ, ‘‘১৬০ মিনিটের বাজেট বক্তৃতার পর উনিও ক্লান্ত হয়ে পড়লেন, আমরাও। কিন্তু কী বলতে চাইলেন, বুঝলাম না। তবে আমি খুশি যে উনি এক বারও বলেননি, অচ্ছে দিন আনেওয়ালে হ্যায়।’’ মোদীর পুরনো মন্তব্য তুলেই এ দিন নির্মলাকে পরামর্শ দিলেন চিদম্বরম।

মোদী সরকারেরই চার বছরের মুখ্য আর্থিক উপদেষ্টা অরবিন্দ সুব্রহ্মণ্যন বলেছেন, অর্থনীতি আইসিইউ-এ চলেছে। আজ প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম রাজ্যসভায় বলেন, ‘‘অর্থনীতিকে আইসিইউ-এ নিয়ে যাওয়ার দরকার ছিল। কিন্তু রোগীকে আইসিইউ-র বাইরেই রেখে দিয়ে অযোগ্য ডাক্তাররা দেখভাল করছে। রঘুরাম রাজন, অরবিন্দ সুব্রহ্মণ্যন, অরবিন্দ পানাগাড়িয়া, উর্জিত পটেলের মতো যোগ্য ডাক্তাররা এই সরকারের সঙ্গে কাজ করতে না-পেরে দেশ ছেড়েছেন। এখন রোগীকে ঘিরে দাঁড়িয়ে ‘সবকা সাথ, সবকা বিকাশ, সবকা বিশ্বাস’ মন্ত্র আউড়ালেই রোগী উঠে বসবে না।’’ 

অর্থনীতির গতি শ্লথ হয়ে যাওয়ায় চলতি বছরে আর্থিক বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশে নেমে আসবে বলে আশঙ্কা। ২০১৯-এর জুলাই-সেপ্টেম্বরে বৃদ্ধির হার ৪.৫ শতাংশ নেমেছে। নির্মলাকে চিদম্বরমের প্রশ্ন, ‘‘শেষ কবে পর পর ছ’টি ত্রৈমাসিকে আর্থিক বৃদ্ধির হার কমেছে?’’ আজ লোকসভায় অর্থ মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর তৃণমূলের সৌগত রায়ের প্রশ্নের জবাবে যুক্তি দিয়েছেন, আন্তর্জাতিক দুনিয়ায় মন্দার ফলেই এ দেশের বৃদ্ধিতে তার প্রভাব পড়েছে। কিন্তু আইএমএফ ভবিষ্যৎবাণী করেছে, আগামী অর্থ বছর বা ২০২০-২১-এই বৃদ্ধির হার ৫.৮ শতাংশ ছুঁয়ে ফেলবে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ৬ শতাংশ বৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছে। চিদম্বরম মানতে চাননি। তাঁর অভিযোগ, আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি খারাপ হতেই পারে। কিন্তু তা কী ভাবে সামাল দিতে হবে, সেটা তো জানতে হবে! মোদী সরকার রক্ষণশীল অর্থনীতিতে বিশ্বাস করে। দ্বিপাক্ষিক ও বহুজাতিক বাণিজ্য চুক্তিকে ভয় পায়। অর্থনীতির সমস্যার কথা হয় জানে না, বা জানলেও বলতে চায় না। 

Advertisement

আরও পড়ুনওমর কেন বন্দি, সুপ্রিম কোর্টে বোন

কী সেই সমস্যা? চিদম্বরমের মত, এক, বাজারে কেনাকাটা কমে যাওয়া বা চাহিদার অভাব। দুই, নতুন বিনিয়োগ বা লগ্নির অভাব। অথচ এই দুই সমস্যার সমাধানে বাজেটে দাওয়াই নেই। পাল্টা জবাব তৈরি করতে নির্মলা আজ সংসদ ভবনেই অর্থসচিব রাজীব কুমার ও রাজস্ব সচিব অজয়ভূষণ পাণ্ডের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। মঙ্গলবার তিনি সংসদের দুই কক্ষেই বাজেট বিতর্কের জবাব দেবেন।  

Advertisement