Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

৮ জুন থেকে কন্টেনমেন্ট জ়োনের বাইরে রেস্তরাঁ, ধর্মস্থান,হোটেল খোলার নির্দেশকা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৫ জুন ২০২০ ০৪:৩৮
ছবি পিটিআই।

ছবি পিটিআই।

৮ জুন থেকে কন্টেনমেন্ট জ়োনের বাইরে রেস্তরাঁ, ধর্মস্থান, হোটেল খোলার নয়া নির্দেশকা স্বাস্থ্যমন্ত্রকের। জারি হল নয়া স্বাস্থ্যবিধি।

ধর্মস্থান

• উপসর্গহীনেরাই প্রবেশ করতে পারবেন। দাঁড়ানো ও বসা-উভয় ক্ষেত্রেই ছয় ফুট দূরত্ব

Advertisement

• মুখে মাস্ক। থুতু ফেলা নয়

• পরস্পরকে ছোঁয়া যাবে না। প্রণাম দূর থেকে। বয়স্ক ও শিশুদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে যেতে নিষেধ

• হাতে স্যানিটাইজ়ার দেওয়া ও থার্মাল স্ক্রিনিং-এর ব্যবস্থা করতে হবে প্রতিষ্ঠানকেই

• বড় জমায়েত নয়

• ভক্তদের নিজস্ব আসন আনতে হবে • বিগ্রহ স্পর্শ নয় • ধর্মস্থানের মধ্যে প্রসাদ বা ‘পবিত্র জল’ বিতরণ নয় • খাওয়ার জায়গায় দূরত্ববিধি

রেস্তরাঁ

• ৬৫ বছরের ঊর্ধ্বে, দশ বছরের নীচে ও অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের না আসার পরামর্শ

• দু’টি চেয়ারের দূরত্ব ছয় ফুট

• কর্মী ও খেতে বা খাবার নিতে আসা ব্যক্তিদের মাস্ক আবশ্যক

• বসে খাওয়ার বদলে খাবার কিনে বাড়িতে নেওয়ায় গুরুত্ব

• উপসর্গহীন কর্মী ও ক্রেতাদের প্রবেশে ছাড়পত্র

• রেস্তরাঁয় অপেক্ষা করার স্থানে, পার্কিংয়ে দূরত্ববিধি

• ডিসপোজ়েবল মেনুকার্ড, কাপড়ের ন্যাপকিনের পরিবর্তে ডিসপোজ়েবল কাগজের ন্যাপকিন

• প্রতি বার খেয়ে ওঠার পরে টেবল স্যানিটাইজ় করা

• লিফটে দূরত্ব

• ই-ওয়ালেটে গুরুত্ব

আরও পড়ুন: ১৯ চিকিৎসক, ৩৮ নার্স-সহ ৪৮০ জন করোনায় আক্রান্ত দিল্লির এমসে

শপিং মল

• বেশি ভিড় হলে প্রবেশ কিছু ক্ষণের জন্য বন্ধ

• খাওয়ার জায়গায় ৫০ শতাংশের বেশি ক্রেতা থাকতে পারবেন না

• মলে থাকা সিনেমা হল, বাচ্চাদের খেলার জায়গা বন্ধ • প্রত্যেকটি দোকানে নির্দিষ্ট সংখ্যায় প্রবেশ • এসির ক্ষেত্রে তাপমাত্রা ২৪-৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস, আপেক্ষিক আর্দ্রতা ৪০-৭০ শতাংশ রাখতে হবে

হোটেল

• খাওয়ার প্রশ্নে রুম সার্ভিসকে প্রাধান্য। খাবার দরজার বাইরে রেখে চলে যাবে হোটেল কর্মীরা

• হোটেলে আগতদের ওই এলাকার কন্টেনমেন্ট জ়োন সম্পর্কে জানাতে হবে

আরও পড়ুন: আমপানে ক্ষতি কত মাপতে আজ সফর কেন্দ্রীয় দলের

কর্মস্থল বিধি

• দূরত্ব বিধি মানতে হবে

• দফতরে যথেষ্ট পরিমাণে স্যানিটাইজার রাখা

• কোনও কর্মী হঠাৎ অসুস্থ হলে আলাদা ঘরের ব্যবস্থা

• এক বা দু’জন আক্রান্ত হলে গোটা দফতর বন্ধ না-করলেও চলবে

• সংক্রমিতেরা যেখানে বসতেন, সেখানে জীবাণুনাশক স্প্রে।

• জানাতে হবে স্বাস্থ্য দফতরকে। যাতে ওই আক্রান্তদের সংস্পর্শে কারা এসেছেন তা খুঁজে বার করা সম্ভব হয়।

• একই সঙ্গে অনেকে সংক্রমিত হলে দু’দিনের জন্য দফতর বন্ধ করে জীবাণুনাশক স্প্রে

আরও পড়ুন

Advertisement