Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
Congress

Congress: নারাজ পিকে, কিশোরের প্রাক্তন সঙ্গী কানুগোলুর হাতে কংগ্রেসের হাল, লক্ষ্যে লোকসভা ভোট!

গত কয়েক মাসে পিকের সঙ্গে কংগ্রেসের একাধিক বৈঠকের খবর পাওয়া যায়। রাহুল গাঁধী, প্রিয়ঙ্কা বঢরার সঙ্গেই শুধু নয়, প্রশান্তের কথা হয় সনিয়া গাঁধীর সঙ্গেও।

২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে কাজ করেন পিকে।

২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে কাজ করেন পিকে। ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৫ মার্চ ২০২২ ১৫:৪৬
Share: Save:

তৃণমূল কংগ্রেসের নির্বাচনী পরামর্শদাতা কি কংগ্রেসের সঙ্গেও গাঁটছড়া বাঁধবেন? এমন প্রশ্ন তৈরি হয়েছিল সম্প্রতি কংগ্রেস নেতৃত্বের সঙ্গে প্রশান্ত কিশোরের একাধিক বৈঠকে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পিকে-র সংস্থা ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ভোটকুশলী হিসেবে কাজ করছে না। এখন জানা যাচ্ছে পিকে-র সঙ্গে চুক্তি না হলেও কংগ্রেস ভরসা রাখছে প্রশান্তেরই প্রাক্তন সহযোগী সুনীল কানুগোলুর উপর। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদীর প্রচারে পিকে-র অন্যতম সেনাপতি ছিলেন এই কানুগোলু।

গত কয়েক মাসে পিকের সঙ্গে কংগ্রেসের একাধিক বৈঠকের খবর পাওয়া যায়। রাহুল গাঁধী, প্রিয়ঙ্কা বঢরার সঙ্গেই শুধু নয়, প্রশান্তের কথা হয় সনিয়া গাঁধীর সঙ্গেও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হাতের সঙ্গে হাত মেলেনি প্রশান্তের। জানা গিয়েছে, শেষ পর্যন্ত কানুগোলুর সঙ্গে কংগ্রেস কর্নাটক ও তেলঙ্গানা বিধানসভা নির্বাচনের জন্য চুক্তি করেছে। ২০২৩ সালে এই দুই রাজ্যে নির্বাচন হওয়ার কথা। তবে কানুগোলু ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনেও কংগ্রেসের সঙ্গী থাকবেন কি না, তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। সূত্রের খবর, দুই রাজ্যে দলের ফলাফল দেখার পরে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে কংগ্রেস হাইকমান্ড।

২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে ছিলেন পিকে। কিন্তু তার পরে অনেক রাজনৈতিক দলের সঙ্গে কাজ করলেও কংগ্রেসের সঙ্গে আর দেখা যায়নি। জানা যায়, উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের সময়েই রাহুলের সঙ্গে বনিবনার অভাব হয়েছিল পিকের। সদ্য পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সাফল্যের পরে কংগ্রেস ফের পিকের হাত ধরতে চেয়েছিল। তবে পিকের মতো কানুগোলুরও ভোটকুশলী হিসেবে সুনাম রয়েছে।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে ডিএমকে–র হয়ে কাজ করেন কানুগোলু। ‘নামাক্কু নামে’ (আমরা আমাদের জন্য)‌‌ নাম দিয়ে প্রচার অভিযান সাফল্য পায়। সে বার ভাল ফল করে ডিএমকে। কিন্তু এর পরেই কানুগোলু দল বদলে এআইএডিএমকে–র হাত ধরেন। যদিও ২০২১ সালের নির্বাচনে ডিএমকে-র কাছে হেরে যায় এআইএডিএমকে। ডিএমকে-র দায়িত্বে ছিল পিকের সংস্থা।

কর্নাটকের বেলারির এক সম্পন্ন পরিবারে জন্ম হলেও কানুগোলু বড় হয়েছেন চেন্নাইতে। ম্যানেজমেন্ট পড়তে যান আমেরিকায়। সেখান থেকে ফিরে গুজরাতে ‘অ্যাসোসিয়েশন অব বিলিয়ন মাইন্ডস’ (এবিএম) সংস্থায় ভোটকুশলী হিসেবে যোগ দেন। এর পরে পিকের সঙ্গে যোগাযোগ। ২০১৪ সালে মোদী এবং ২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসে হয়ে প্রচারে পিকের সঙ্গী হিসেবে কাজ করেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.