×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বাবার কাছে মোমো খেতে চাওয়ার ‘শাস্তি’ মৃত্যু!

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৮ মে ২০১৮ ১৬:৩৬
অয়ন।

অয়ন।

পথের ধারে মোমোর দোকান দেখেই বাবার কাছে আবদার করেছিল বছর ছয়েকের ছেলেটা। বাবা আপত্তি করায় রাস্তার মধ্যেই কান্না জুড়ে দিয়েছিল সে। তাতেই মেজাজ হারিয়ে ফেলেন বাবা। ছুঁড়ে ফেলে দেন পাশের খালে। খালের জলেই ডুবে মৃত্যু হয় তার। পরে উদ্ধার হয় দেহ।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ দিল্লির খাদার এলাকায়। পুলিশ জানায়, মৃত শিশুর নাম অয়ন। বাবা, ঠাকুরদা-ঠাকুমার সঙ্গেই থাকত সে। ছেলের বয়স এক বছর হওয়ার আগেই স্বামীর ঘর ছেড়ে অন্যত্র চলে যান অয়নের মা আশমা। সঙ্গে নিয়ে যান আর এক ছেলে এবং এক মেয়েকে।

পুলিশ শিশুটির বাবাকে গ্রেফতার করেছে। তার নাম সঞ্জয় আলউই। ৩১ বছরের ওই যুবক মদ্যপ অবস্থায় এ কাজ করেছেন বলে মনে করছে পুলিশ। জেরায় নিজের দোষও স্বীকার করেছেন সঞ্জয়।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় শিশুটিকে খালে ফেলে দেওয়ার ঘটনাটি দেখে ফেলেছিলেন পথচলতি কয়েক জন। তাঁরাই পাকড়াও করেন ওই যুবককে। তুলে দেন পুলিশের হাতে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান শুনে, খালের জলে তল্লাশি শুরু হয়। শনিবার রাতে সেখান থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। রবিবার সকাল থেকে ফের শুরু হয় তল্লাশি। অবশেষে ওই দিন বিকেলের দিকে শিশুটির দেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন: নাগরদোলা ভেঙে মৃত্যু দশ বছরের বালিকার

পেশায় ই-রিকশা চালক সঞ্জয় রোজই মদ্যপান করত বলে তার পরিবারের অভিযোগ। সঞ্জয়ের এক কাকা বলেন, ‘‘প্রতি দিন ও মদ্যপ অবস্থায় বাড়ি ফিরত। রোজই কিছু না কিছু সমস্যা তৈরি করত। শনিবার সব কিছু ছাপিয়ে গেল।’’ তিনি আরও জানান, ২০০৪ সালে বিয়ে হয় সঞ্জয়। তাঁর স্ত্রীর নাম আশমা। তাঁদের তিন সন্তান। বছর ছয়েক আগে সঞ্জয়কে ছেড়ে চলে যান আশমা।

আরও পড়ুন: লিনি নেই, এখনও বিশ্বাস হচ্ছে না সজিশের

Advertisement