Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Ghaziabad Crime

স্ত্রীর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে খুনের পর মৃতদেহের সঙ্গে নিজস্বী! পরে নিজেকেও শেষ করলেন স্বামী

পুলিশ জানিয়েছে, ওই দম্পতি গাজিয়াবাদে বসবাস করতেন। স্বামী গাজিয়াবাদের লোনিতে চাকরি করতেন। স্ত্রী চাকরি করতেন নয়ডার একটি বেসরকারি সংস্থায়।

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৮ মে ২০২৪ ১০:১৭
Share: Save:

স্ত্রীর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে খুন করার পর নিজেকেও শেষ করলেন স্বামী! উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের ঘটনা। আত্মহত্যার আগে ওই ব্যক্তি স্ত্রীর মৃতদেহের সঙ্গে নিজস্বী তোলেন বলেও পুলিশ জানিয়েছে। পাশাপাশি পুলিশের অনুমান, দাম্পত্য কলহের জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই দম্পতি গাজিয়াবাদে বসবাস করতেন। স্বামী গাজিয়াবাদের লোনিতে চাকরি করতেন। স্ত্রী চাকরি করতেন নয়ডার একটি বেসরকারি সংস্থায়। স্ত্রীর চাকরি করতে যাওয়া নিয়ে প্রায়ই দু’জনের মধ্যে অশান্তি লেগে থাকত বলে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন। এই নিয়ে বিবাদ চরমে উঠলে স্ত্রীকে খুন করে স্বামী আত্মহত্যা করেন বলে মনে করছে পুলিশ।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি প্রথমে একটি ওড়না দিয়ে স্ত্রীর গলায় পেঁচিয়ে তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করেন। এর পর স্ত্রীর দেহের সঙ্গে একটি নিজস্বী তুলে পরিবার-পরিজনদের পাঠিয়ে দেন। পরে তিনি আত্মহত্যা করেন।

ওই ছবি দেখে পরিবারের সদস্যেরা ঘটনাস্থলে এসে দেহ দু’টি উদ্ধার করেন। পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ দেহ দু’টি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। সহকারী পুলিশ কমিশনার (দেহাট) বিবেককুমার যাদব বলেছেন, “মনে করা হচ্ছে স্বামী প্রথমে ওড়না দিয়ে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুন করেন। পরে একই ওড়না ব্যবহার করে নিজে ঝুলে পড়েন। আত্মহত্যার আগে মৃত স্ত্রীর সঙ্গে নিজস্বী তুলে কয়েক জনকে পাঠিয়েছিলেন তিনি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Ghaziabad Crime Ghaziabad Murder
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE