×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৬ মে ২০২১ ই-পেপার

নাকে টিউব নিয়েই সেতু পরিদর্শনে পর্রীকর, ‘অমানুষ, সবই ক্ষমতার জন্য’ টুইট কংগ্রেসের

সংবাদ সংস্থা
পানাজি ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৬:৪৩
নাকে টিউব লাগানো অবস্থায় সেতু পরিদর্শন করছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর। ছবি: পিটিআই।

নাকে টিউব লাগানো অবস্থায় সেতু পরিদর্শন করছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর। ছবি: পিটিআই।

রুগ্ন চেহারা, চোখে-মুখে অসুস্থতার ছাপ স্পষ্ট, নাক থেকে খাদ্যনালী পর্যন্ত টিউব লাগানো। এরকম অবস্থাতেই গোয়ার মাণ্ডবী নদীর উপর তৈরি হওয়া সেতু তদারকি করছেন সে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই রবিবার থেকে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়েছে মোদী সরকারকে ঘিরে।

শুধু মাত্র রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য এমন একজন অসুস্থ মানুষকে কী ভাবে সাইট পরিদর্শনে পাঠানো সম্ভব, প্রশ্ন তুলেছেন জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা

গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর বহুদিন ধরেই অসুস্থ। তিনি অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসার আক্রান্ত। সম্প্রতি অক্টোবরে তাঁর অস্ত্রোপচার হয়। তার পর থেকে পালা করে দিল্লির হাসপাতালই তাঁর ঠিকানা হয়ে উঠেছে। এই প্রথম তিনি হাসপাতালে যাওয়া ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরলেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: ১৯৮৪ শিখ দাঙ্গায় সজ্জন কুমারের যাবজ্জীবন, ‘মূল্য দিতে হবে গাঁধী পরিবারকে’, তোপ জেটলির

গোয়ার মাণ্ডবী নদীর উপর সেতু তৈরি হচ্ছে। এই সেতু পানাজিমের সঙ্গে পুরো গোয়াকে সংযুক্ত করবে। রবিবার সেই সেতু পরিদর্শন করতেই গিয়েছিলেন পর্রীকর। সঙ্গে ছিলেন দু’জন চিকিৎসক। নিজে থেকে হাঁটতেও পারছিলেন না। তাঁকে ধরে ধরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সেখানে সেতুর ইঞ্জিনিয়ারদের সঙ্গে কথাও বলেন।

আরও পড়ুন: তিন কংগ্রেসি মুখ্যমন্ত্রীর শপথে বিরোধী জোটের হাওয়া, নেই শুধু মায়া-মমতা-অখিলেশ

মনোহর পর্রীকরের এই ছবি ঘিরেই শুরু হয়েই বিতর্ক। জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা টুইট করেন, ‘নাক থেকে খাদ্যনালী পর্যন্ত টিউব লাগানো রয়েছে। কতটা অমানুষ হলে এই অবস্থায় একজনকে কাজ করতে এবং ছবি তুলতে চাপ দেওয়া হয়। এই সমস্ত চাপ আর তামাশা না করে এই মুহূর্তে তাঁর নিজের যত্ন নেওয়া উচিত।’ ওমর আবদুল্লার এই দৃষ্টিভঙ্গির প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে এবং কাশ্মীরের নিহত জঙ্গি বুরহান ওয়ানির প্রসঙ্গ টেনে এনে বিজেপির মুখপাত্র গৌরব ভাটিয়া টুইট করেন, ‘একজনের অসুস্থতা নিয়ে এ ভাবে রাজনীতি করা উচিত নয়। ছবিটা অনেক কিছু বলে দিচ্ছে। দেশের সেবায় মনোহর পর্রীকরজি কতটা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তার আভাস পাওয়া যাচ্ছে।’ এর পরেই তিনি লেখেন, ‘জনগণের সেবা ভিতর থেকে আসে কিন্তু আপনার মতো নেতারা যাঁরা বুরহান ওয়ানির প্রশংসা করেন, তাঁরা সেটা বুঝবেন না।’


কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রিয়ঙ্কা চতুর্বেদী টুইট করেন, ‘তাঁর নাকে কি টিউব ঢোকানো রয়েছে? একটা রাজনৈতিক দলের এতটা ক্ষমতার লোভ থাকতে পারে যে, অসুস্থ মানুষকে কাজে পাঠিয়ে দেয়? বিজেপির কাছে সবই সম্ভব...ক্ষমতার জন্য। মুখ্যমন্ত্রী আপনি নিজের যত্ন নিন, কারণ এটা খুব পরিষ্কার যে আপনার দল জিতবে না।’

Advertisement