Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
IAF

অর্ধেক আকাশ! ভারতীয় বায়ুসেনায় প্রথম বার সীমান্তযুদ্ধের নেতৃত্বে মহিলা অফিসার শালিজা

২০০৩ সালে যুদ্ধ হেলিকপ্টারের পাইলট হিসাবে ভারতীয় বায়ুসেনায় যোগ দিয়েছিলেন পঞ্জাবের লুধিয়ানার কন্যা শালিজা ধামি। এখন তিনি বায়ুসেনার গ্রুপ ক্য়াপটেন পদে রয়েছেন।

Group Captain Shaliza Dhami becomes first woman officer in IAF history to command frontline combat unit

বায়ুসেনার পশ্চিমাঞ্চল কমান্ডের অন্তর্গত একটি ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিটের নেতৃত্ব দেওয়া হল গ্রুপ ক্যাপ্টেন শালিজা ধামির হাতে। ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৭ মার্চ ২০২৩ ২০:৫২
Share: Save:

পাকিস্তান সীমান্তে মোতায়েন ভারতীয় বায়ুসেনার ‘ফ্রন্টলাইন কমব্যাট ইউনিটের’ দায়িত্ব প্রথম বার পেলেন কোনও মহিলা অফিসার। বায়ুসেনার পশ্চিমাঞ্চল কমান্ডের অন্তর্গত একটি ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিটের নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে গ্রুপ ক্যাপ্টেন শালিজা ধামির হাতে।

২০০৩ সালে যুদ্ধ হেলিকপ্টারের পাইলট হিসাবে ভারতীয় বায়ুসেনায় যোগ দিয়েছিলেন পঞ্জাবের লুধিয়ানার কন্যা শালিজা। ২,৮০০ ঘণ্টারও বেশি সময় কপ্টার উড়ানের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এই মহিলা আধিকারিক দীর্ঘ দিন পাক সীমান্তে মোতায়েন ইউনিটে কাজ করেছেন। পালন করেছেন বায়ুসেনার ‘ফ্লাইং ইনস্ট্রাক্টর’ (উড়ান প্রশিক্ষক)-এর দায়িত্বও। বুধবার আন্তর্জাতিক মহিলা দিবস। তার আগেই শালিজাকে নতুন দায়িত্ব দেওয়ার কথা ঘোষণা করল বায়ুসেনা।

চলতি মাসে ভারতীয় বায়ুসেনা মহিলা অফিসারদের পূর্ব এবং পশ্চিম সেক্টরের বিভিন্ন ‘ফ্রন্টলাইন কমব্যাট ইউনিটের’ দায়িত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। সেই সিদ্ধান্ত মেনেই শালিজার হাতে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিটের ‘কমান্ড’ তুলে দেওয়া হয়েছে বলে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের একটি সূত্রের খবর। প্রসঙ্গত, কয়েক বছর আগে ভারতীয় বায়ুসেনা প্রথম মহিলা পাইলট হিসাবে রাফাল যুদ্ধবিমান ওড়ানোর জন্য ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী সিংহকে মনোনীত করেছিল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE