Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
5G

গুজরাতের সব জেলায় চালু ৫জি, দিল্লি, মুম্বই-সহ ৫০ শহরে রয়েছে এ প্রযুক্তি: টেলিকম মন্ত্রক

টেলিকম অপারেটরদের থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ৬,৪৪,১৩১ গ্রামের মধ্যে ৬,০৫,২৩০টি গ্রামে মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে গিয়েছে। তবে তলতি বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত ৩৮,৯০১টি গ্রামে এই সুবিধা নেই।

দেশের ৬,০৫,২৩০টি গ্রামে মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে গিয়েছে। লোকসভায় জানিয়েছেন টেলিকম মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবুসিং চৌহান।

দেশের ৬,০৫,২৩০টি গ্রামে মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে গিয়েছে। লোকসভায় জানিয়েছেন টেলিকম মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবুসিং চৌহান। ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৪ ডিসেম্বর ২০২২ ২১:২১
Share: Save:

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাতের প্রত্যেক জেলায় পৌঁছে গিয়েছে ৫জি পরিষেবা। দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু-সহ ৫০টি শহরের বাসিন্দারাও এই প্রযুক্তির সুবিধা পাচ্ছেন। বুধবার লোকসভায় এই তথ্য জানিয়েছেন টেলিকম মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী দেবুসিং চৌহান।

লোকসভায় একটি প্রশ্নের জবাবের টেলিকম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘‘চলতি বছরের ১ অক্টোবর থেকে দেশে ৫জি পরিষেবা শুরু করেছে টেলিকম সংস্থাগুলি। ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ১৪টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মিলিয়ে ৫০ শহরে ৫জি পরিষেবার সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে।’’

দেশে ইন্টারনেট সংযোগ নিয়ে অন্য একটি প্রশ্নের উত্তরে দেবুসিং জানিয়েছেন, টেলিকম অপারেটরদের থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ৬,৪৪,১৩১ গ্রামের মধ্যে ৬,০৫,২৩০টি গ্রামে মোবাইল ইন্টারনেট সংযোগ পৌঁছে গিয়েছে। তবে তলতি বছরের মার্চ মাস পর্যন্ত ৩৮,৯০১টি গ্রামে এই সুবিধা নেই। পাশাপাশি, মন্ত্রীর দাবি, আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায় ১,২০,৬১৩টি গ্রামে মোবাইল ইন্টারনেটের সংযোগ রয়েছে। ওই গ্রামগুলিতে ২৫ শতাংশের বেশি আদিবাসী বাসিন্দা রয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। এ ছাড়া, ‘ভারতনেট’ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ২.৬ লক্ষ গ্রাম পঞ্চায়েতের মধ্যে ১,৮৪,৩৯৯টিতে এই পরিষেবার জন্য উপযুক্ত পরিকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে বলে দাবি মন্ত্রীর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

5G 5G Network Telecom Services Gujarat
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE