×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

‘কালাজাদু’ করায় শ্যালকের মৃত্যু! সন্দেহের বশে জামাইকে পুড়িয়ে মারল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা

সংবাদ সংস্থা
হায়দরাবাদ২৫ নভেম্বর ২০২০ ১৫:০১
ঘটনাস্থলে পুলিশ।

ঘটনাস্থলে পুলিশ।

শ্যালকের উপর ‘কালাজাদু’ করেছেন, এই সন্দেহে এক সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারকে চেয়ারে বেঁধে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল তাঁরই শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। তেলঙ্গানার জগতিয়াল জেলার বলবন্তপুর গ্রামের ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম পাগিলাপবন কুমার (৩৬)। হায়দরাবাদে একটি সফটওয়্যার সংস্থায় কাজ করতেন তিনি। সম্প্রতি পবনের শ্যালক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তাঁর শ্বশুরবাড়ির দাবি, শ্যালকের উপর ‘কালাজাদু’ করেছিলেন পবন। আর সে কারণেই মৃত্যু হয় তাঁর।

পুলিশ জানিয়েছে, শ্যালকের মৃত্যুর পর তাঁর স্ত্রীর খোঁজখবর নিতে শ্বশুরবাড়ি গিয়েছিলেন পবন। অভিযোগ, তখনই তাঁকে শ্বশুরবাড়ির লোকেরা স্থানীয় মঞ্জুনাথ মন্দির চত্বরে একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে হাত-পা চেয়ারের সঙ্গে বেঁধে দেন। তার পর গায়ে আগুন লাগিয়ে দেন। স্থানীয়দের কাছে থেকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। কিন্তু তত ক্ষণে দেহের বেশির ভাগটাই পুড়ে গিয়েছিল পবনের, জানিয়েছেন পুলিশ আধিকারিক নাগরাজু।

পবনের স্ত্রী কৃষ্ণবেণী পুলিশের কাছে জানিয়েছেন, তাঁর দাদার স্ত্রী সুমালতা বোতলে জল আনতে পাঠিয়েছিলেন। ফিরে এসে দেখেন পবনকে ঘরের ভিতর আটকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কৃষ্ণাবেণীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সুমালতা এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের গ্রেফতার করেছে। পুলিশের দাবি, অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন সুমালতা।

তবে কেন পবনের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হল তা নিয়ে তদন্ত করা হবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ। এই ঘটনার পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে কি না তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Advertisement
Advertisement