Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
National News

অভিনন্দনের বাবার কি মনে পড়ছে পাক হেফাজতে বরুণের উপর নির্যাতনের কথা?

আজ থেকে ২০ বছর আগে কার্গিল যুদ্ধের সময় একই দশা হয়েছিল বরুণের। যুদ্ধবিমান ভেঙে পড়ার ফলে বরুণও প্যারাশ্যুটে চেপে নেমেছিলেন পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে। ধরা পড়েছিলেন পাক সেনাদের হাতে। হয়েছিলেন যুদ্ধবন্দি বা ‘পাও’।

ফিল্মের চরিত্র বরুণ চক্রপাণি (বাঁ দিকে) ও অভিনন্দনের বাবা অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমান। -ফাইল ছবি

ফিল্মের চরিত্র বরুণ চক্রপাণি (বাঁ দিকে) ও অভিনন্দনের বাবা অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমান। -ফাইল ছবি

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৫:০২
Share: Save:

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর হেফাজতে থাকা তাঁর ছেলের রক্তাক্ত মুখ-চোখ দেখে কি এক বারের জন্যও বরুণের কথা মনে পড়েনি ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনের বাবা অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমানের? পাক সেনার হাতে প্রচণ্ড মারধর খাওয়ার পর কোনও ভাবে তাদের নজর এড়িয়ে দেশে ফিরে আসতে পেরেছিলেন বায়ুসেনার স্কোয়াড্রন লিডার বরুণ চক্রপাণি। ১৯৯৯ সালে, কার্গিল যুদ্ধের সময়। তাঁর ছেলে অভিনন্দন যে এখনও ঘরে ফেরেনি!

Advertisement

আজ থেকে ২০ বছর আগে কার্গিল যুদ্ধের সময় একই দশা হয়েছিল বরুণের। যুদ্ধবিমান ভেঙে পড়ার ফলে বরুণও প্যারাশ্যুটে চেপে নেমেছিলেন পাক-অধিকৃত কাশ্মীরে। ধরা পড়েছিলেন পাক সেনাদের হাতে। হয়েছিলেন যুদ্ধবন্দি বা ‘পাও’। দিনের পর দিন বন্দুকের মুখে বরুণের উপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছিল পাক সেনারা। বরুণের মনে পড়ত স্ত্রী লীলার কথা। তারই মধ্যে এক দিন পাক সেনাদের কড়া নজর এড়িয়ে সীমান্ত ও নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতে ফিরে এসে প্রাণ বাঁচাতে পেরেছিল বরুণ।

বরুণ অবশ্য ছিলেন বিশিষ্ট পরিচালক মণি রত্নমের ফিল্ম ‘কাত্রু ভেলিয়িদাই’-এর কেন্দ্রীয় চরিত্র। যে ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অভিনেতা কার্তি। তাঁর স্ত্রী লীলার ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন অদিতি রাও হায়দারি। আর আজ সত্যি সত্যিই পাক সেনা-হেফাজতে যাঁর উপর চালানো হয়েছে অত্যাচার, ভারতীয় বায়ুসেনার সেই উইং কম্যান্ডার অভিনন্দনের বাবা অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমান সে দিন ফিল্ম বানানোর জন্য যাবতীয় পরামর্শ দিয়েছিলেন পরিচালক মণি রত্নমকে।

দেখুন, সেই ফিল্মের ট্রেলার

Advertisement

সামরিক কৃতিত্বের জন্য অভিনন্দনের বাবা বহু সম্মান পেয়েছেন ভারতীয় বায়ুসেনার। করেছেন বহু স্বার্থত্যাগও। তিনি জানেন, রণক্ষেত্রে কোনও পিছুটানই থাকা উচিত নয় সেনার। দেশের স্বার্থে কোনও দুর্বলতাই থাকা উচিত নয় তাঁর পরিবারের কোনও সদস্যেরই। অভিনন্দনকে সমর্থন ও শুভেচ্ছার জন্য ভারতীয় নাগরিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার তাঁর বাবা, অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমান বলেছেন, ‘‘আমার ছেলের এই বীরত্ব, শৌর্যের জন্য আমি গর্বিত। আশা করছি, ও সুস্থ শরীরে ফিরে আসবে, দ্রুত।’’

ফিল্মের নায়ক কার্তি ও অভিনেত্রী অদিতি রাও হায়দারির সঙ্গে অভিনন্দনের বাবা অবসরপ্রাপ্ত এয়ার মার্শাল সিমহাকুট্টি বর্তমান (বাঁ দিকে)

আরও পড়ুন- ‘অভিনন্দনকে এখনই ফিরিয়ে দিন’, ইমরানকে বার্তা ভুট্টোর নাতনি ফতিমার​

আরও পড়ুন- পাক কবজায় উইং কমান্ডার অভিনন্দন, ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি দেশজুড়ে​

কিন্তু মণি রত্নমের সেই ফিল্মে বরুণ চক্রপাণির চরিত্রে যিনি অভিনয় করেছিলেন সেই কার্তি চুপচাপ বসে থাকতে পারেননি। যাবতীয় পেশাদারিত্বের খোলস ছেড়ে বেরিয়ে এসে কার্তি তাঁর টুইটে পাক হেফাজতে থাকা বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের জন্য শুভেচ্ছা কামনা করে দ্রুত সুস্থ শরীরে তাঁকে দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন পাক প্রশাসনের কাছে।

আরও পড়ুন: কী ভাবে চলে জইশ নেটওয়ার্ক? কোথা থেকে আসে টাকা?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.