Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৭ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Toy Train: পর্যটক টানতে ১১৮ বছর পর কালকা-শিমলা রুটে আধুনিক টয় ট্রেন আনছে রেল

কালকা থেকে শিমলা পর্যন্ত ৯৬.৬ কিলোমিটার রুটে চালানোর জন্য তিনটি নতুন টয় ট্রেন চালু করতে চায় রেল।

ফিরোজ ইসলাম 
কলকাতা ১০ মে ২০২২ ০৬:০৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Popup Close

দেশের বিভিন্ন রুটে টয় ট্রেন সফরে পর্যটক টানতে বড় বড় কাচের জানলাওয়ালা ভিস্তাডোম কোচের ব্যবস্থা হয়েছে। ওই সফরকে আরও আকর্ষক করে টয় ট্রেনেও এ বার চালু হচ্ছে আধুনিক প্রযুক্তির ‘লিঙ্ক হফম্যান বুশ’ বা এলএইচবি কোচ, যা স্টেনলেস স্টিল দিয়ে তৈরি। এই নতুন ব্যবস্থার সূচনা হচ্ছে কালকা-শিমলা রুটে। দেশে ন্যারোগেজ ট্রেনে এই প্রথম ওই কোচ ব্যবহৃত হতে চলেছে।

রেল সূত্রের খবর, কালকা থেকে শিমলা পর্যন্ত ৯৬.৬ কিলোমিটার রুটে চালানোর জন্য তিনটি নতুন টয় ট্রেন চালু করতে চায় রেল। সেই জন্য আধুনিক প্রযুক্তির ৩০টি এলএইচবি কোচ নির্মাণের বরাত দেওয়া হয়েছে কপূরথালার রেল কোচ ফ্যাক্টরিকে। ন্যারোগেজ লাইনের মাপে (৭৬৫ মিলিমিটার) তৈরি ৩০টি কোচে ১৮০ ডিগ্রি পরিসরে ঘুরতে পারে, এমন আসন ছাড়াও থাকবে সিসি ক্যামেরা, ইমার্জেন্সি অ্যালার্ম, প্যাসেঞ্জার অ্যাড্রেস সিস্টেম, প্যাসেঞ্জার ইনফর্মেশন সিস্টেম, ওয়াইফাই, এলইডি টিভি, মোবাইল চার্জের পয়েন্ট, এলইডি আলো, কাচ দেওয়া বড় জানলা, কাচের ছাদ-সহ নানান ব্যবস্থা। কামরায় ডেস্টিনেশন বোর্ডের মাধ্যমে যাত্রীদের পরবর্তী স্টেশন সম্পর্কে জানানো হবে।

পর্যটকদের কাছে কালকা-শিমলা রেলপথকে আরও আকর্ষক করে তুলতে কয়েক বছর ধরেই ওই রুটে ট্রেনের গতি বাড়ানোর কথা ভাবছে রেল। সড়কপথে কালকা থেকে শিমলা পৌঁছতে প্রায় চার ঘণ্টা লাগে। কিন্তু রেলপথে ১৮টি স্টেশন পেরিয়ে ওই দূরত্ব অতিক্রম করতে লাগে পাঁচ ঘণ্টা। রেলের পর্যবেক্ষণ, যাত্রীদের একাংশ এই কারণেই টয় ট্রেনের বদলে সড়কপথ বেছে নেন। ট্রেনের গতি গড়ে ঘণ্টায় ২৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৩৫ কিলোমিটারে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হলে ওই সময় সাশ্রয় হবে বলে রেলকর্তাদের অভিমত। কতকটা সেই কারণেই আধুনিক প্রযুক্তির হালকা ওজনের এলএইচবি কোচ ব্যবহারের উদ্যোগ চলছে বলে রেল সূত্রের খবর। ১৯০৩ সালে চালু হওয়া ৯৬.৬ কিলোমিটার দীর্ঘ কালকা-শিমলা রেলপথে ১০২টি সুড়ঙ্গ, ৮৮৯টি সেতু এবং ৯০০টিরও বেশি বাঁক রয়েছে, যা অনেক জায়গাতেই খুব সঙ্কীর্ণ।

Advertisement

প্রায় ১১৮ বছর পরে ওই রুটে নতুন ট্রেন চালু করার উদ্দেশ্যে এলএইচবি কোচ তৈরি হচ্ছে। উত্তর রেলের কর্তাদের আশা, নতুন ট্রেন চালু হলে ওই পথ পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষক হয়ে উঠবে। চলতি বছরের শেষে ওই ট্রেন চালু হওয়ার কথা। কালকা-শিমলা ছাড়াও ভারতে টয় ট্রেন রয়েছে দার্জিলিং, নীলগিরি, মাথেরন এবং কাংড়া উপত্যকায়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement