×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৫ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

কাশ্মীরে পুলিশের হাতে ধরা পড়ল জইশ সহযোগী

সংবাদ সংস্থা
কুপওয়ারা ৩০ নভেম্বর ২০২০ ২০:০৪
এই মাসের শুরুতেই জম্মু-কাশ্মীরের নাগরোটা এলাকায় চার জইশ জঙ্গির মৃত্যু হয় নিরাপত্তাকর্মীদের গুলিতে। তখন উদ্ধার করা হয়েছিল ১১টি একে ৪৭ রাইফেল, ৩টি পিস্তল ও ২৯টি গ্রেনেড। ছবি: এএফপি

এই মাসের শুরুতেই জম্মু-কাশ্মীরের নাগরোটা এলাকায় চার জইশ জঙ্গির মৃত্যু হয় নিরাপত্তাকর্মীদের গুলিতে। তখন উদ্ধার করা হয়েছিল ১১টি একে ৪৭ রাইফেল, ৩টি পিস্তল ও ২৯টি গ্রেনেড। ছবি: এএফপি

এক জইশ-ই-মহম্মদ গোষ্ঠীর এক সহযোগীকে গ্রেফতার করল জম্মু কাশ্মীর পুলিশ। কাশ্মীরের কুপওয়ারা এলাকা থেকে একটি হ্যান্ড গ্রেনেড ও নগদ সাড়ে তিন লক্ষ টাকা-সহ ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কী কারণে সে আশ্রয় নিয়েছিল কাশ্মীরে, তা এখনও স্পষ্ট করে কিছু জানায়নি পুলিশ।

জম্মু-কাশ্মীরে এখন চলছে ডিডিসি বা জেলা উন্নয়ন পরিষদের নির্বাচন। ১৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত সেই নির্বাচন চলবে। আটটি দফার নির্বাচনের জন্য আলাদা করে নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করা হয়েছে।তার মধ্যেই এই গ্রেফাতারির ঘটনা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। ভোটের সময় কোনওরকম নাশকতা করার ছক এই জঙ্গির ছিল কি না, সেদিকটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এই মাসের শুরুতেই জম্মু-কাশ্মীরের নাগরোটা এলাকায় চার জইশ জঙ্গির মৃত্যু হয় নিরাপত্তাকর্মীদের গুলিতে। তখন উদ্ধার করা হয়েছিল ১১টি একে ৪৭ রাইফেল, ৩টি পিস্তল ও ২৯টি গ্রেনেড।

Advertisement

আরও পড়ুন: শিলিগুড়িতে অশোক, ফিরহাদ এক মঞ্চে, কটাক্ষ দিলীপের

তার আগে, ক’দিন আগে দিল্লি থেকে আব্দুল লতিফ মীর ও মহম্মদ আসরাফ খাটানা নামে দুই জইশ জঙ্গিকে গ্রেফতার করে দিল্লি পুলিশ। এদের মধ্যে একজনের বাড়ি কাশ্মীরের বারামুল্লা জেলায়, আর এক জনের কুপওয়ারা জেলায়। পুলিশ জানায়, জঙ্গি সংগঠনের অন্ধ সমর্থক এই দুই কাশ্মীরের বাসিন্দা প্রশিক্ষণ নেওয়ার জন্য সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানে যাওয়ার পরিকল্পনা করছিল।

আরও পড়ুন: সারদা-নারদা এবং বিজেপি নিয়ে কল্যাণের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ অপরূপা

Advertisement