Advertisement
০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
D.Y. Chandrachud

Justice Chandrachud: ১২০ স্কোয়ার ফুটের অফিস ছিল, আইনজীবীদের দাবিতে অতীত স্মরণ বিচারপতি চন্দ্রচূড়ের

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘‘আমরা গাছের নীচে দাঁড়িয়ে থাকতাম। আপনারা পরম সৌভাগ্যবান যে চেম্বার পেয়েছেন।"

বিচারপতি চন্দ্রচূড়।

বিচারপতি চন্দ্রচূড়। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৬ জুলাই ২০২২ ১২:০৮
Share: Save:

তখন দিব্যি পরিচিতি বেড়েছে। তিনি অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল। তার পরেও মুম্বইয়ে মাত্র ১২০ স্কোয়ার ফুটের অফিসে থেকে কাজ করেছেন। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের পৃথক চেম্বারের দাবির প্রেক্ষিতে এমনই মন্তব্য করলেন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

Advertisement

সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের একাংশ আলাদা আলাদা চেম্বার দাবি করেছেন। বর্তমানে এক একটি চেম্বারে দু’জন করে আইনজীবীকে কাজ করতে হচ্ছে। এ নিয়ে শীর্ষ আদালতে আবেদন করেছেন তাঁরা। এই মামলা শুনতে বসে নিজের অতীত স্মরণ করলেন বিচারপতি চন্দ্রচূড়। জানালেন, অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল হয়েও মাত্র ১২০ স্কোয়ার ফুটের চেম্বারে বসে কাজ করেছেন।

সোমবার এই আবেদনের শুনানিতে বিচারপতি এ এস বোপন্নার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানিয়ে দেয় এক এক জন আইনজীবীকে একটা করে চেম্বার দিলে অর্ধেক আইনজীবীকে খোলা আকাশের নীচে থাকতে হবে। যদিও আদালত জানায়, সব পক্ষের আইনজীবীদের পিটিশন দাখিল হলে তাঁরা দু’সপ্তাহ পর এই মামলাটি শুনবেন। সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের প্রশাসনিক শাখা ৪৬৮ জন আইনজীবীর একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, দু’জন করে আইনজীবীর জন্য বরাদ্দ হয়েছে একটি করে চেম্বার। যদিও এতে মোটেই খুশি নন আইনজীবীদের একটি বড় অংশ। তাঁরা আলাদা আলাদা চেম্বারের জন্য আবেদন জানান।

গত সপ্তাহে এই সংক্রান্ত একটি মামলার জরুরি ভিত্তিতে শুনানির আবেদন করা হয়েছিল। তখন প্রধান বিচারপতি এনভি রমণার পর্যবেক্ষণ ছিল, ‘‘আমরা গাছের নীচে দাঁড়িয়ে থেকে কাজ করতাম। আপনারা তো সৌভাগ্যবান যে, চেম্বার পেয়েছেন।’’ তিনি এ-ও জানান, দিল্লি ছাড়া দেশের কোনও আদালতে আর আইনজীবীদের এমন চেম্বারের ব্যবস্থা নেই।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.