Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

দীপক মিশ্রের আমলে সঠিক পথে চলেনি সুপ্রিম কোর্ট, বিস্ফোরক জোসেফ কুরিয়ান

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০২ ডিসেম্বর ২০১৮ ১৬:০৫
প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (বাঁ দিকে)-এর সঙ্গে সদ্য প্রাক্তন বিচারপতি জোসেফ কুরিয়ান। নিজস্ব চিত্র।

প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ (বাঁ দিকে)-এর সঙ্গে সদ্য প্রাক্তন বিচারপতি জোসেফ কুরিয়ান। নিজস্ব চিত্র।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসাবে অবসর নেওয়ার পরই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিচারপতি জোসেফ কুরিয়ান। তাঁর মন্তব্য, ‘‘দীপক মিশ্র প্রধান বিচারপতি থাকাকালীন সঠিক দিশায় ছিল না সুপ্রিম কোর্ট।’’ সদ্যপ্রাক্তন বিচারপতি জোসেফ কুরিয়ানের এই মন্তব্যে সাড়া পড়ে গিয়েছে দেশের আইনজীবী মহলে। গত ৩০ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি পদ থেকে অবসর নিয়েছেন তিনি।

এই বছরের ১২ জানুয়ারি অভূতপূর্ব ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল ভারতের বিচারব্যবস্থা। প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বে যে ভাবে পরিচালিত হচ্ছিল ভারতীয় বিচারব্যবস্থা, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সংবাদ মাধ্যমের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের অন্যতম অভিজ্ঞ বিচারপতিরাই। সেখানে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন বিচারপতি জে চেলামেশ্বর, রঞ্জন গগৈ, মদন লোকুর এবং কুরিয়ান জোসেফ। তাঁদের অভিযোগ ছিল, বেশি অভিজ্ঞতা সম্পন্ন বিচারপতিদের সরিয়ে রেখে অপেক্ষাকৃত জুনিয়র বিচারপতিদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছিল বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলার ভার। অভিজ্ঞ বিচারপতিদের এই সিদ্ধান্তে অবাক হয়েছিল সারা দেশ। অনেকে সংবাদ মাধ্যমের কাছে যাওয়া উচিত ছিল কিনা, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিলেন। সেই ঘটনার ব্যাখ্যা দিতে গিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন সদ্য প্রাক্তন বিচারপতি জোসেফ কুরিয়ান।

তাঁর মন্তব্য,‘‘ দীপক মিশ্র প্রধান বিচারপতি থাকাকালীন সঠিক দিশায় যাচ্ছিল না দেশের শীর্ষ আদালত। সে বিষয়গুলি আমরা বিভিন্ন সময় তাঁকে জানাচ্ছিলাম। কিন্তু তাতে কাজের কাজ কিছু হচ্ছিল না । শেষ পর্যন্ত আমরা নিজেদের বক্তব্য জানানোর জন্য সংবাদ মাধ্যমকেই বেছে নিই। চুপ করে বসে থাকার চেয়ে কিছু একটা করা ভাল, এই ভাবনা থেকেই আমরা সংবাদ মাধ্যমের কাছে যাই। এখনও মনে হয় সেই সিদ্ধান্ত সঠিক ছিল।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: শবরীমালা: প্রতিবাদে লক্ষ লক্ষ মহিলা পাঁচিল গড়ে তুলবেন ১ জানুয়ারি

২০০০ সালে কেরল হাইকোর্টে একজন বিচারক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেছিলেন জোসেফ কুরিয়ান। দশ বছর পর হিমাচল প্রদেশের হাইকোর্টে তিন বছরের জন্য প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিযুক্ত হয়েছিলেন তিনি। এর পরই জোসেফ কুরিয়ান যোগ দেন সুপ্রিম কোর্টে। অবসর নেওয়ার পর তাঁর মন্তব্য, ‘‘কেরলে বিচারক থাকাকালীন আমি প্রায় ৬৬০০০ মামলার রায় দিয়েছি। হিমাচল প্রদেশে সেই সংখ্যা ছিল ১৫০০০ এবং সুপ্রিম কোর্টে আমি প্রায় ৮০০০ মামলার নিষ্পত্তি করেছি। আমার কাছে এই সংখ্যা খুবই তৃপ্তির।’’

আরও পড়ুন: ‘হিন্দু-মুসলমান একই ব্যবসা করি, এমন হবে কোনও দিন ভাবতে পারিনি’

(কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, গুজরাত থেকে মণিপুর - দেশের সব রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement