Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

KMC Election 2021: সুব্রতভূমে মনোনয়ন নাটক, বোনকে প্রার্থী করেও প্রতীক প্রত্যাহার! টানাপড়েন তৃণমূলে

অমিত রায়
কলকাতা ২৯ নভেম্বর ২০২১ ১২:০৯
বিদায়ী ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা দিনভর দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতির অফিসে ধরনা দিয়েছেন ওই ওয়ার্ডের প্রার্থী হতে।

বিদায়ী ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা দিনভর দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতির অফিসে ধরনা দিয়েছেন ওই ওয়ার্ডের প্রার্থী হতে।
ফাইল চিত্র।

আসন্ন কলকাতা পুরভোটে ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী নিয়ে দলের অন্দরে টানাপড়েন দেখা দিয়েছে। ওই ওয়ার্ডের বিদায়ী কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়। কিন্তু তাঁর বদলে ওই ওয়ার্ডে সদ্যপ্রয়াত রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের ভগ্নি তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করেছিল দল। রবিবার সকাল থেকে প্রচারও শুরু করে দিয়েছিলেন তনিমা। কিন্তু তার মধ্যেই ঘটনাপ্রবাহে একটি রাজনৈতিক মোচড় তৈরি হয়েছে। যা থেকে তনিমা ওই ওয়ার্ডে প্রার্থী হবেন কি না, তা নিয়ে খানিক অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। এখন দেখার, দল এবং দলনেত্রী বিষয়টি নিয়ে কী সিদ্ধান্ত নেন।

শনিবার সকাল থেকে দেওয়াল লিখে প্রচার শুরু করে দিয়েছিলেন তনিমা। তারই পাশাপাশি বাড়ি বাড়ি গিয়েও প্রাথমিক প্রচার শুরু করেছিলেন। কিন্তু তার মধ্যেই তাল কেটেছে রবিবার রাতে। তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতি দেবাশিস কুমারকে নির্দেশ দিয়েছেন তনিমার থেকে তৃণমূলের প্রতীক ফিরিয়ে নিতে। সূত্রের খবর, কোনও প্রতিবাদ বা বিসম্বাদের মধ্যে না গিয়ে দেবাশিসকে তৃণমূলের প্রতীক ফিরিয়েও দিয়েছেন তনিমা। রবিবার রাত পর্যন্ত ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত করতে পারেননি তৃণমূল নেতৃত্ব।

এই পরিস্থিতিতে বিদায়ী ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা দিনভর দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল সভাপতির অফিসে ধরনা দিয়েছেন আবার ওই ওয়ার্ডের প্রার্থী হতে। সূত্রের খবর, রবিবার রাতে সুদর্শনা জেলা সভাপতি দেবাশিসের কাছে দলের প্রতীকও চেয়েছিলেন। কিন্তু দলের শীর্ষ নেতৃত্বের তরফে ওই বিষয়ে কোনও নির্দেশ আসেনি বলেই বিদায়ী কো-অর্ডিনেটরকে জানিয়ে দিয়েছেন দেবাশিস। ওই বিষয়ে কথা বলতে রবিবার রাতে জেলা তৃণমূল সভাপতি দেবাশিসকে একাধিকবার তাঁর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

Advertisement

অন্যদিকে, তৃণমূলের একটি সূত্র জানাচ্ছে, ওই ওয়ার্ডে সুদর্শনাকে প্রার্থী না করারই পক্ষপাতী দল। বস্তুত, প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা ‘আইপ্যাক’-এর তরফেও সুদর্শনাকে প্রার্থী না-করারই পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। একটা সময়ে সুদর্শনা নিজেকে সুব্রতের ‘রাজনৈতিক ছাত্রী’ বলে পরিচয় দিতেন। তাঁর সঙ্গে সুব্রতের ‘রাজনৈতিক ঘনিষ্ঠতা’-ও ছিল। কিন্তু দলের অন্দরে এবং এলাকায় বিদায়ী কো-অর্ডিনেটরকে নিয়ে কিছু অনুযোগ-অভিযোগ তৈরি হয়েছে বলে খবর। যদিও সুদর্শনার ঘনিষ্ঠ মহল থেকে সে সবই ‘ভিত্তিহীন এবং অপপ্রচার’ বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

ফলে অনিমার থেকে প্রতীক আপাতত ফিরিয়ে নিলেও সুদর্শনাকেই যে সেখানে প্রার্থী করা হবে, তা-ও নিশ্চিত নয়। সূত্রের খবর, সুদর্শনার বদলে তনিমা বা নতুন কাউকে প্রার্থী দাঁড় করিয়ে ওই সমস্যার সমাধান করতে চাইছেন তৃণমূল শীর্ষনেতৃত্ব।

গত ৪ নভেম্বর প্রয়াত হন সুব্রত। তাঁর ভগ্নিকে প্রার্থী করে ওই এলাকার মানুষের কাছে বার্তা পাঠিয়েছিলেন তৃণমূল শীর্ষনেতৃত্ব। কিন্তু সূত্রের খবর, দলের ‘অভ্যন্তরীণ কিছু সমস্যা’-র কারণেই আপাতত তনিমার থেকে প্রতীক ফিরিয়ে নিয়েছে দল। তৃণমূলের একাংশের দাবি, সোমবার রাতের মধ্যেই যাবতীয় সমস্যার সমাধান ঘটিয়ে তৃণমূল প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে তাঁকে প্রতীক দিয়ে দেবে দক্ষিণ কলকাতা জেলা তৃণমূল।

আরও পড়ুন

Advertisement