×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুন ২০২১ ই-পেপার

‘শাপ’ নিয়ে প্রজ্ঞাকে খোঁচা দিগ্বিজয়ের

সংবাদ সংস্থা 
ভোপাল ২৯ এপ্রিল ২০১৯ ০৩:০৬
ভোপালে প্রচারের ফাঁকে কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিংহ। ছবি: পিটিআই।

ভোপালে প্রচারের ফাঁকে কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিংহ। ছবি: পিটিআই।

মুম্বই হামলার ঘটনায় নিহত পুলিশ অফিসার হেমন্ত করকরে তাঁর অভিশাপেই মারা গিয়েছেন— এই মন্তব্য করে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন মালেগাঁও বিস্ফোরণ-কাণ্ডের প্রধান অভিযুক্ত, ভোপালের বিজেপি প্রার্থী সাধ্বী প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুর। সেই মন্তব্য নিয়েই এ দিন সাধ্বী প্রজ্ঞাকে খোঁচা দিলেন প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিংহ।

আজ দিগ্বিজয় বলেন, ‘‘প্রজ্ঞা ঠাকুর বলেছিলেন, এটিএস প্রধান হেমন্ত করকরেকে তিনি অভিশাপ দিয়েছিলেন। মাসুদ আজহারকে যদি তিনি (প্রজ্ঞা) অভিশাপ দিতেন, তা হলে এই সার্জিকাল স্ট্রাইকের প্রয়োজনই হত না।’’

২০০৮ সালের মালেগাঁও বিস্ফোরণের তদন্ত করে মুম্বই পুলিশের অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াডের (এটিএস) প্রধান করকরে সাধ্বী প্রজ্ঞা-সহ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছিলেন। তার ভিত্তিতেই প্রজ্ঞা-সহ অভিযুক্তেরা গ্রেফতার হয়েছিলেন। ওই প্রসঙ্গ তুলে সাধ্বী বলেছিলেন, ‘‘তদন্তকারী দল করকরেকে বলেছিল, প্রমাণ না পেলে ওঁকে (সাধ্বী) ছেড়ে দিন। করকরে বলেছিলেন, ওঁর বিরুদ্ধে প্রমাণ জোগাড় করতে আমি সব কিছু করব। কিন্তু ওঁকে ছাড়ব না। উনি ছিলেন দেশদ্রোহী, ধর্মবিরোধী।’’ সাধ্বী আরও বলেছিলেন, ‘‘আমি বলেছিলাম তোমার (করকরে) সর্বনাশ হবে। তার সোয়া এক মাসের মধ্যেই পরিবার তার শ্রাদ্ধ করতে বসে।’’

Advertisement

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

পরে অবশ্য দলের চাপে ক্ষমা চেয়ে ওই মন্তব্য প্রত্যাহার করেন প্রজ্ঞা। বিজেপি দাবি করেছিল, সাধ্বী প্রজ্ঞার ওই মন্তব্য একান্তই ব্যক্তিগত। বিজেপিকে দিগ্বিজয়ের খোঁচা— শিবরাজ সিংহ চৌহান, উমা ভারতীরা তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী হতে রাজি হননি বলেই, বিজেপি শেষবেলায় সাধ্বী প্রজ্ঞাকে প্রার্থী করেছে।

বিজেপির বিরুদ্ধে আজ ফের বিভাজন এবং ধর্মীয় মেরুকরণের অভিযোগ তুলেছেন দিগ্বিজয়। তিনি বলেন, ‘‘যাঁরা বলছেন হিন্দুরা বিপদে, একজোট হওয়া দরকার, তাঁদের বলতে চাই, ৫০০ বছর মুসলিমরা দেশ শাসন করেছে। কোনও সম্প্রদায়ের তো ক্ষতি হয়নি।’’ দিগ্বিজয়ের অভিযোগ, ‘হর হর মোদী’ স্লোগান দিয়ে হিন্দুদের অপমান করছে বিজেপি। নাম না করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে তাঁর কটাক্ষ, ‘‘আমরা জানি, গুগলে ‘ফেকু’ লিখলে কার ছবি আসে!’’

বিহারে আরজেডি-র চাপে বামেদের সঙ্গে জোট করতে পারেনি কংগ্রেস। আজ দিগ্বিজয় সাফ জানিয়েছেন, তিনি নিজে কানহাইয়া কুমারের সমর্থক। বেগুসরাইয়ের সিপিআই প্রার্থী কানহাইয়া তাঁর হয়ে প্রচার করতে ৮ এবং ৯ মে ভোপালে আসছেন বলেও জানান দিগ্বিজয়। কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘‘আমি দলকে জানিয়েছি, কানহাইয়ার বিরুদ্ধে প্রার্থী দিয়ে বিরাট ভুল করেছে আরজেডি।’’



Tags:
Lok Sabha Election 2019 Digvijay Singh Sadhvi Pragyaলোকসভা ভোট ২০১৯

Advertisement