×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

গোহত্যার অভিযোগে পিটিয়ে খুন মধ্যপ্রদেশে

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল২১ মে ২০১৮ ০৪:২৫

ফের তাণ্ডব গোরক্ষকদের। এ বার মহারাষ্ট্রের সাতনা জেলায়। গোহত্যার ‘অপরাধে’ এক ব্যক্তিকে গ্রামবাসীরা পিটিয়ে মেরেছে বলে অভিযোগ। আশঙ্কাজনক অবস্থায় এক জন ভর্তি হাসপাতালে। ঘটনায় যুক্ত সন্দেহে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবার রাতের ঘটনা। নিহত যুবকের নাম রিয়াজ় খান। পুলিশ জানিয়েছে, আমগড়া গ্রামের বাসিন্দা রিয়া়জ় সে দিন সন্ধেয় তাঁর গাড়িচালক শাকিল ও আরও কয়েক জনকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। অভিযোগ, হঠাৎই তাঁদের ঘিরে ফেলে গ্রামবাসীদের একাংশ। বাকিরা পালালেও রিয়াজ় ও শাকিলকে ধরে ফেলে গ্রামবাসীরা। শুক্রবার ভোরে পুলিশ যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছয়, তত ক্ষণে মারা গিয়েছেন রিয়াজ়। ঘটনাস্থল থেকে একটি জবাই করা বলদের দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বস্তাবন্দি কিছু অন্য গবাদি পশুর মাংস মিলেছে বলেও খবর। পরে পবন সিংহ গোন্দ, বিজয় সিংহ গোন্দ, ফুল সিংহ গোন্দ ও নারায়ণ সিংহ গোন্দ নামে চার জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা সকলে আমগড়ারই বাসিন্দা। আজ সকালে ঘটনাস্থলে যান এসডিও অরবিন্দ তিওয়ারি-সহ পুলিশকর্তারা।

মধ্যপ্রদেশে গোহত্যার শাস্তি সাত বছরের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা। তবে এ দিনই গোহত্যা রুখতে কেন্দ্রের বিশেষ আইন আনা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেত্রী সাধ্বী সরস্বতী। এমন আইন যাতে দোষীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডও দেওয়া যেতে পারে। একের পর এক তথাকথিত গোরক্ষকদের হামলা নিয়ে গত বছর অস্বস্তিতে পড়ে নরেন্দ্র মোদী সরকার। মানুষকে সুরক্ষা দেওয়া সরকারের দায়িত্ব কি না, তা কেন্দ্রের কাছে জানতে চায় সুপ্রিম কোর্ট। গোরক্ষকদের তাণ্ডব রুখতে রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। কড়া নির্দেশিকাও দেন বিচারপতিরা।

Advertisement
Advertisement