Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪
Dowry

পাঁচ লক্ষ টাকা পণের জন্য বধূকে পোড়ানোর হুমকি! টাকা না পেয়ে বিবাহ বিচ্ছেদ করলেন স্বামী

সাবা বানো নামে ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তাঁকে মারধর করেছেন শ্বশুরবাড়ির লোক জন। পাঁচ লক্ষ টাকা পণ এবং অন্য জিনিসপত্র চেয়েছিলেন। না দিতে পারায় সাবাকে তিন তালাক দিয়েছেন যুবক।

image of divorce

ছবি: প্রতিনিধিত্বমূলক।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ০৮ জুলাই ২০২৩ ২১:২৩
Share: Save:

পাঁচ লক্ষ টাকা পণ চেয়েছিলেন! না পেয়ে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেন স্বামী। এমনটাই জানিয়েছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। পুলিশের তরফে আরও জানানো হয়েছে, পণের জন্য স্ত্রীকে পুড়িয়া মারার হুমকিও দিয়েছিলেন যুবক। উত্তরপ্রদেশের কৌশাম্বি জেলার ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, সাবা বানো নামে ওই মহিলা অভিযোগ করেছেন, তাঁকে মারধর করেছেন শ্বশুরবাড়ির লোক জন। পাঁচ লক্ষ টাকা পণ এবং অন্য জিনিসপত্র চেয়েছিলেন। না দিতে পারায় সাবাকে তিন তালাক দিয়েছেন আতিক আহমেদ নামে ওই যুবক। বিচ্ছেদের পর আতিক এবং তাঁর পরিবারের ছ’জনের বিরুদ্ধে কাড়া ধাম থানায় অভিযোগ করেছেন সাবা। তার পরেই পুলিশ মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, সাড়ে চার বছর আগে সাবার সঙ্গে বিয়ে হয় আতিকের। ২০২৩ সালের মার্চ মাসে সাবার পরিবারের থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা পণ চান আতিক। সাবা জানান, তাঁর বাবার আর্থিক সঙ্গতি নেই। এই টাকা মেটাতে পারবেন না। এই কথা জানতে পেরে সাবাকে মারধর করেন আতিক। সেখানে উপস্থিত ছিলেন তাঁর পরিবারের লোকজন। এর পর সাবাকে বাড়ি থেকে বার করে দেন আতিক। জানান, টাকা নিয়ে না ফিরলে তাঁকে পুড়িয়ে মারবেন। পুলিশ সুপার ব্রিজেশকুমার শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা হয়েছে। অভিযুক্তকে ধরার চেষ্টা করছে পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

dowry UP talaq
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE