Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৬ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কন্যাসন্তান দত্তক নেওয়ার ঝোঁক বাড়ছে, দাবি রিপোর্টে

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, গত এক বছরে একেবারে সদ্যোজাত থেকে ৫ বছর বয়সি ৩ হাজারের বেশি শিশুকে দত্তক নেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সংস্থা 
চেন্নাই ০২ নভেম্বর ২০২০ ০৫:০১
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

Popup Close

সন্তান দত্তক নেওয়ার ক্ষেত্রে এ দেশে কন্যাসন্তানের চাহিদা বাড়ছে বলে জানাল চাইল্ড অ্যাডপশন রিসোর্স অথরিটি-র একটি রিপোর্ট (সিএআরএ)। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত এক বছরে মোট দত্তক নেওয়া শিশুর সংখ্যা ৩ হাজার ৫৩১। তার মধ্যে ২ হাজার ৬১ জন মেয়ে এবং ১ হাজার ৪৭০ জন ছেলে।

সিএআরএ জানিয়েছে, সাধারণত দত্তকের আবেদন এলে তারা তিনটি বিকল্প দেয়। ছেলে, মেয়ে অথবা সংস্থার বেছে দেওয়া যে কোনও একটি। এ ক্ষেত্রে বেশি সংখ্যক কন্যাসন্তান দত্তক নেওয়ার ঘটনায় সমাজে মেয়েদের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ছে বলে মনে করছে সিএআরএ।

যদিও সমাজকর্মীদের বক্তব্য, মেয়েদের বেশি দত্তক নেওয়া হচ্ছে কারণ তারা সংখ্যায় বেশি। এখনও অধিকাংশ পরিবারেই ছেলে শিশুর চাহিদা বেশি থাকায় কন্যাভ্রুণ হত্যা হয় অথবা জন্মের পরে পরিত্যাগ করা হয় মেয়েদের। ফলে দত্তক কেন্দ্রগুলিতেও মেয়ের সংখ্যাই থাকে বেশি।

Advertisement

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, গত এক বছরে একেবারে সদ্যোজাত থেকে ৫ বছর বয়সি ৩ হাজারের বেশি শিশুকে দত্তক নেওয়া হয়েছে। সেখানে ৫ থেকে ১৮ বছর বয়সি ৪১১টি শিশুকে দত্তক নেওয়া হয়েছে। সিএআরএ জানাচ্ছে, অভিভাবকেরা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই মাতৃত্ব বা পিতৃত্বের আনন্দ উপভোগ করার জন্য ২ বছরের কম বয়সি শিশুদের দত্তক নিতে চান। তবে একটি পরিত্যক্ত অসহায় শিশুকে সুস্থ জীবন উপহার দেওয়ার আদর্শ অনেক সময়েই দত্তক নেওয়ার ক্ষেত্রে কাজ করে না। যে কারণে কোনও রকম প্রতিবন্ধকতাযুক্ত শিশুকে দত্তক নেওয়ার নজির অনেক কম। সিএআরএ জানিয়েছে, রাজ্যগুলির মধ্যে গত এক বছরে মহারাষ্ট্র থেকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শিশু দত্তক নেওয়া হয়। তার পরে রয়েছে যথাক্রমে কর্নাটক, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ, এবং ওড়িশা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement