Advertisement
০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
parliament

সমবায় সংশোধনী বিল পেশ

ডিএমকে নেতা আর বালু, আরএসপি নেতা এন কে প্রেমচন্দ্রনও বিলটির বিরোধিতা করেন। তবে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বর্মার যুক্তি, বিলটি সংসদের আওতার মধ্যেই রয়েছে।

সমবায় মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী বি এল বর্মা সমবায় সমিতি বিষয়ক সংশোধনী বিলটি পেশ করেন।

সমবায় মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী বি এল বর্মা সমবায় সমিতি বিষয়ক সংশোধনী বিলটি পেশ করেন। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০২২ ০৭:১৭
Share: Save:

বিরোধীদের দাবি ছিল বিলটি আগে সংসদীয় স্থায়ী কমিটির কাছে পাঠানো হোক। সেই দাবি অগ্রাহ্য করে আজ শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই একাধিক রাজ্যে সক্রিয় সমবায় সমিতি বিষয়ক সংশোধনী বিলটি লোকসভায় পেশ করল কেন্দ্র। সমবায় মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী বি এল বর্মা বিলটি পেশ করেন।

Advertisement

কেন্দ্রের বক্তব্য, যে সমস্ত সমবায় সমিতি একাধিক রাজ্যে সক্রিয়, সেগুলির প্রশাসন, নজরদারির পরিকাঠামো এবং ব্যবসায়িক সুবিধা সংক্রান্ত বিষয়গুলি জোরদার করার পাশাপাশি নির্বাচনী প্রক্রিয়ার সংস্কারও এই বিলের লক্ষ্য। কিন্তু বিরোধীদের অভিযোগ, সমবায় সমিতি রাজ্যের অধিকারের আওতাধীন বিষয়। এমন অনেক বড় সমবায় আছে, যেগুলির কর্মকাণ্ড একাধিক রাজ্যে ছড়ানো। কেন্দ্র এই আইন এনে সেগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে। তাতে ঘুরপথে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোই লঙ্ঘন করা হচ্ছে। এই যুক্তিতেই বিলটিকে স্থায়ী কমিটিতে পাঠানোর দাবি জানান লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, এই বিলের ফলে কেন্দ্রের হাতেই ক্ষমতার রাশ চলে যেতে পারে, যা সমবায় সমিতিগুলির স্বাধীন ভাবে কাজ করার পথে বাধার সৃষ্টি করতে পারে। ক্ষমতার অপব্যবহারের আশঙ্কাও থেকে যাচ্ছে। কংগ্রেস নেতা মণীশ তিওয়ারি বিলটি প্রত্যাহারের দাবি জানান।

ডিএমকে নেতা আর বালু, আরএসপি নেতা এন কে প্রেমচন্দ্রনও বিলটির বিরোধিতা করেন। তবে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বর্মার যুক্তি, বিলটি সংসদের আওতার মধ্যেই রয়েছে। অতীতেও বিলটি সংশোধিত হয়েছে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.