Advertisement
৩০ জানুয়ারি ২০২৩

ট্রেন আটকে চাকরির দাবি শিক্ষানবিশদের

রেলে চাকরির দাবিতে সকাল থেকেই রেল অবরোধ কর্মসূচি। আর তাতেই নাজেহাল মুম্বই। চূড়ান্ত ব্যস্ততার মধ্যে প্রায় কয়েক ডজন ট্রেন আটকে যাওয়ায় চরম বিপাকে নিত্যযাত্রীরা। অবরোধকারীদের হঠাতে লাঠি চালিয়েছে পুলিশ।

প্রতিবাদ: মাতুঙ্গা থেকে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস স্টেশনের মাঝে বিক্ষোভ। ছবি: পিটিআই।

প্রতিবাদ: মাতুঙ্গা থেকে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস স্টেশনের মাঝে বিক্ষোভ। ছবি: পিটিআই।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৮ ০৩:৫৫
Share: Save:

রেলে চাকরির দাবিতে সকাল থেকেই রেল অবরোধ কর্মসূচি। আর তাতেই নাজেহাল মুম্বই। চূড়ান্ত ব্যস্ততার মধ্যে প্রায় কয়েক ডজন ট্রেন আটকে যাওয়ায় চরম বিপাকে নিত্যযাত্রীরা। অবরোধকারীদের হঠাতে লাঠি চালিয়েছে পুলিশ। তবে কয়েক ঘণ্টা পরে বিক্ষোভ উঠে গেলেও সারা দিনে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি। দেশে চাকরির ব্যবস্থা করতে নরেন্দ্র মোদী সরকার কতটা ব্যর্থ, তা তুলে ধরে সরব হয়েছে কংগ্রেস-সহ বিরোধীরা।

Advertisement

আজ মুম্বইয়ে ‘রেল রোকো’-র পিছনের ছিলেন শ’পাঁচেক শিক্ষানবিশ। রেলের শিক্ষানবিশ হিসেবে কাজ করেছেন তাঁরা। কিন্তু চাকরি মেলেনি। এর পরেই রেলের চাকরি পরীক্ষার নিয়ম বদলের দাবি নিয়ে আজ সকাল সাতটা থেকে লাইন দখল করে বসে পড়েন তাঁরা। মাটুঙ্গা থেকে ছত্রপতি শিবাজি টার্মিনাস স্টেশনের মাঝের রেললাইনে বিক্ষোভকারীরা বসে পড়ায় আটকে পড়ে একাধিক ট্রেন। ৩০টি লোকাল-সহ বেশ কিছু এক্সপ্রেস ট্রেনও বাতিল করতে হয়। অবরোধকারীদের দাবি, পুলিশ লাঠি চালালে অনেকেই আহত হয়েছেন।

বিক্ষোভকারীদের দাবি, রেলে তাঁদের জন্য স্থায়ী চাকরির ব্যবস্থা করতে হবে। কারণ, রেলের অ্যাপ্রেনটিস বা শিক্ষানবিশের পরীক্ষায় তাঁরা পাশ করলেও গত চার বছরে কোনও নিয়োগ হয়নি। তাঁদের অভিযোগ, চাকরি না পেয়ে হতাশায় অন্তত দশ জন আত্মহত্যা করেছেন। শিক্ষানবিশদের জন্য চাকরিতে যে ২০ শতাংশ কোটা রয়েছে, তা তুলে দেওয়ার দাবি তুলেছেন তাঁরা। বিক্ষোভে মুম্বইয়ের রেল পরিষেবা পুরোপুরি ভেঙে পড়তেই পরিস্থিতি সামলাতে তড়িঘড়ি সাংবাদিক বৈঠক ডেকে রেলমন্ত্রী পীযূষ গয়াল বলেন, ‘‘আইন অনুযায়ী, শিক্ষনবিশদের রেলে স্থায়ী চাকরি দেওয়ার কোনও নিয়ম নেই। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে স্বল্পকালীন মেয়াদে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে। যদিও ইতিমধ্যেই ২০ শতাংশ সংরক্ষিত আসনে সরাসরি নিয়োগ করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল।’’ ওই সংরক্ষণের উর্ধ্বসীমা তুলে দেওয়ার সম্ভাবনা খারিজ করে দিয়েছে রেল মন্ত্রক। রেল রোকো নিয়ে বিজেপিকে আক্রমণ করে কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা বলেন, ‘‘শিক্ষিত যুবকেরা চাকরির দাবিতে রেল রোকো করছেন, এর চেয়ে লজ্জার আর কী আছে! আর মহারাষ্ট্র ও কেন্দ্রে দু’জায়াগাতেই তো বিজেপি সরকার চালাচ্ছে।’’

যথেষ্ট চাকরি তৈরি হচ্ছে না বলে দীর্ঘ দিন ধরেই সরব একাধিক অর্থনীতিবিদ। অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়া পল ক্রুগম্যানের মতে, কাজ চাই দেশের যুবকদের। বছরে দু’কোটি চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়েও ক্ষমতায় এলেও বছরে দু’লক্ষ চাকরি দিতেও হিমশিম খাচ্ছে মোদী সরকার।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.