Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Omicron: পরীক্ষা বাড়ানোর নির্দেশ কেন্দ্রের

ভারতে এখনও কোনও রোগীর শরীরে ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট পাওয়া যায়নি বলে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডবিয়া আজ রাজ্যসভায় জানিয়েছেন।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০১ ডিসেম্বর ২০২১ ০৫:৪৬

বারবার চরিত্র বদল করে করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট বিপজ্জনক হয়ে উঠলেও আরটি-পিসিআর এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় সেটিকে চিহ্নিত করা সম্ভব। তাই সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে করোনা পরীক্ষা বাড়াতে বলল কেন্দ্র। আকাশ, জল ও স্থলপথে অন্য দেশ থেকে যাঁরা ভারতে আসছেন, তাঁদের উপরে নিরন্তর নজরদারির বিষয়টি এ দিন রাজ্যগুলিকে ফের মনে করিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভারতে এখনও কোনও রোগীর শরীরে ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট পাওয়া যায়নি বলে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডবিয়া আজ রাজ্যসভায় জানিয়েছেন। কাল লোকসভায় কোভিড নিয়ে আলোচনা হবে।

ওমিক্রন-আতঙ্কের আবহে জনস্বাস্থ্যের পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে আজ রাজ্যগুলির সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ। আন্তর্জাতিক উড়ানের যাত্রীদের ক্ষেত্রে কেন্দ্রের নির্দেশিকা অনুযায়ী রাজ্যগুলিকে পদক্ষেপ করতে বলার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় কর্তারা জানান, করোনার পজ়িটিভ স্যাম্পলগুলি জিনোম সিকোয়েন্সের জন্য অবিলম্বে ‘ইনসাকগ’-এর পরীক্ষাগারে পাঠাতে হবে। সংক্রমিতদের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের চিহ্নিত করে ১৪ দিনের নজরদারি ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। কোথাও সংক্রমণের বাড়বাড়ন্ত (ক্লাস্টার) চিহ্নিত হলে নজরদারি বাড়াতে হবে সেখানেও। ওই বৈঠকেই আইসিএমআর-এর ডিজি বলরাম ভার্গব জানান, ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট আরটি-পিসিআর এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষাকে ফাঁকি দিতে পারে না। তাই দেশজুড়ে পরীক্ষা বাড়াতে হবে। ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ ধরা পড়েছে ৬৯৯০ জনের, যা গত ৫৫১ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন।

Advertisement

বৈঠকে নীতি আয়োগের সদস্য (স্বাস্থ্য) ভি কে পল বলেন, চলতি বছরের মধ্যে দেশের সমস্ত প্রাপ্তবয়স্ক (৯৪ কোটি) নাগরিকের প্রথম ডোজ়ের টিকাকরণ সম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে ‘হর ঘর দস্তক’ প্রচার কর্মসূচির মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে। যদিও এই ঘোষণার নেপথ্যে কেন্দ্রের কিছুটা অস্বস্তিও থাকছে, কারণ এর আগে নভেম্বরেই প্রাপ্তবয়স্কদের টিকাকরণ সেরে ফেলা হবে বলে মাণ্ডবিয়া ঘোষণা করেছিলেন।

আজ রাজ্যসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ওমিক্রন প্রতিরোধে সতর্কতামূলক সব রকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। রাজ্যগুলিকে এ দিনই চিঠি দিয়ে নয়া ভেরিয়েন্টের বিষয়ে সতর্ক করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভল্লা জানিয়েছেন, কোভিড সংক্রান্ত বিধিনিষেধের মেয়াদ ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে। ওমিক্রনের মোকাবিলায় বিভিন্ন রাজ্য নিজেদের মতো করে প্রস্তুতি সেরে রাখছে। তবে ওমিক্রন-আক্রান্ত দেশগুলি থেকে বিমান আসা বন্ধ করতে দেরি হচ্ছে কেন, সেই প্রশ্ন তুলেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল। বৃহন্মুম্বই পুরসভা জানিয়েছে, মুম্বইয়ে স্কুল খোলার তারিখ দু’সপ্তাহ পিছিয়ে ১ ডিসেম্বরের বদলে ১৫ ডিসেম্বর করা হয়েছে।

সিরাম ইনস্টিটিউটের সিইও আদার পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, প্রয়োজন হলে শুধুমাত্র ওমিক্রন ভেরিয়েন্ট প্রতিরোধের জন্য নির্দিষ্ট কোভিশিল্ড টিকা তৈরির কথাও ভাবা যেতে পারে। আগামী সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। তবে এই মুহূর্তে ওমিক্রনের জন্য আলাদা টিকার দরকার নেই বলেই তাঁর মত। ল্যানসেট পত্রিকায় প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্র বলছে, কোভিশিল্ডের দু’টি ডোজ় যাঁরা নিয়েছিলেন, গত এপ্রিল-মে মাসে ভারতে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ের তাণ্ডবের সময়েও তাঁদের ক্ষেত্রে ৬৩ শতাংশ কার্যকারিতা দেখিয়েছে সিরামের ওই টিকা। পুনাওয়ালা জানান, সরকার বুস্টার ডোজ় দিতে বললেও তাঁরা পর্যাপ্ত টিকা সরবহার করতে পারবেন। তবে চিন্তা বাড়িয়ে মডার্নার সিইও স্তেফান বঁশে জানিয়েছেন, ডেল্টা ভেরিয়েন্ট রুখতে তাঁদের টিকা যতটা কার্যকর, ওমিক্রনের বিরুদ্ধে তা ততটা কার্যকর না-ও হতে পারে।

আরও পড়ুন

Advertisement