Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
PM Narendra Modi

লতার স্মৃতিচারণায় রাম নামে মগ্ন মোদী

২০২৪-এর ভোটের জন্য বিভিন্ন রাজ্যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব তথা মোদী। উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটের আগে বারবার এসে তাঁকে ডবল ইঞ্জিনের তত্ত্ব ব্যাখ্যা করতে দেখা গিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ছবি: পিটিআই

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৭:৩৯
Share: Save:

অযোধ্যায় রাম বিনা গীত নেই। সে ‘গীত’ যদি লতা মঙ্গেশকরের হয়, তা হলেও নয়!

Advertisement

কোকিল কণ্ঠীর ৯৩তম জন্মদিনে উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যার একটি চক-কে লতা মঙ্গেশকরের নামে নামাঙ্কিত করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই অনুষ্ঠানে ভিডিয়োর মাধ্যমে উপস্থিত হয়ে তিনি শোনালেন, রাম মন্দির নিয়ে প্রয়াত সঙ্গীত শিল্পী কতটা উচ্ছ্বসিত ছিলেন। আর উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ তো বলেই দিয়েছেন, ‘‘অদূর ভবিষ্যতে হিন্দু দেবদেবী, ধর্মগুরুদের এবং রাম জন্মভূমি আন্দোলনের নেতাদের স্মৃতিসৌধ অযোধ্যায় স্থাপন করা হবে।’’

লতার নামে চকের নামকরণ করে মোদী বলেন, “লতাদিদির সঙ্গে আমার অনেক মধুর আবেগময় স্মৃতি রয়েছে। যখনই কথা বলতাম তাঁর মধুর কণ্ঠ আমাকে বিহ্বল করত।” তাঁর সংযোজন, “রাম মন্দিরের ভূমি পুজা শেষ হওয়ার পর তিনি আমাকে ফোন করে আনন্দ প্রকাশ করেছিলেন। ভীষণ খুশি ছিলেন সেদিন। বিশ্বাসই করতে পারছিলেন না যে সত্যিই রাম মন্দির এ বার হচ্ছে।”

২০২৪-এর ভোটের জন্য বিভিন্ন রাজ্যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব তথা মোদী। উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা ভোটের আগে বারবার এসে তাঁকে ডবল ইঞ্জিনের তত্ত্ব ব্যাখ্যা করতে দেখা গিয়েছে। সেই সঙ্গে বিপুল অর্থের প্রকল্পগুলির শিলান্যাস করেছেন মোদী। সর্বোপরি রামমন্দিরকে সামনে রেখে বিজেপি উত্তরপ্রদেশে গত দু’টি বিধানসভা ভোটে সাফল্য পেয়েছে। কোভিডে প্রশাসনিক ব্যর্থতা এবং গঙ্গায় মৃতদেহ ভেসে যাওয়ার মতো তিক্ত স্মৃতিকেও যা ধুয়ে দিতে পেরেছে বলে মনে করেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

Advertisement

তাই অযোধ্যার প্রেক্ষাপটে লতার স্মৃতিচারণের সময়ও প্রধানমন্ত্রীকে রাম নামে মগ্ন হতে দেখা গিয়েছে। দিনের শুরুতে তাঁর টুইট, ‘লতাদিদিকে তাঁর জন্মদিবসে স্মরণ করি। কত কিছু রয়েছে যা আজ মনে পড়ছে। অসংখ্য বার আলাপাচারিতায় তাঁর স্নেহ আমার প্রতি বর্ষিত হয়েছে। আমি খুশি যে তাঁর নামে অযোধ্যার একটি চক হচ্ছে। ভারতের অন্যতম সেরা আইকনের প্রতি যথার্থ শ্রদ্ধার্ঘ্য’। লতা মঙ্গেশকরের নামাঙ্কিত ওই চকে তৈরি করা হয়েছে ৪০ ফুটের বীণা। যার ওজন প্রায় ১৪ টন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.