Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

দুইয়ের বেশি সন্তান হলে ভোটাধিকার কেড়ে নিক সরকার, পরামর্শ রামদেবের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৪ নভেম্বর ২০১৮ ১৯:০৭
জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করলেন রামদেব। ছবি: সংগৃহীত।

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করলেন রামদেব। ছবি: সংগৃহীত।

বিবাহিত দম্পতিদের দুইয়ের বেশি সন্তান হলে ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া উচিত সরকারের। এ দেশের জনসংখ্যার নিয়ন্ত্রণে এমনটাই পরামর্শ যোগগুরু রামদেবের। পাশাপাশি, তাঁর মতো অবিবাহিতদের বিশেষ ভাবে সম্মানিত করা উচিত বলেও মত তাঁর। কারণ, তাঁরা দেশের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিচ্ছেন। রবিবার হরিদ্বারে নিজের আশ্রমে রামদেবের ভক্তদের নিয়ে এক সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি।

দেশের জনসংখ্যার উত্তরোত্তর বৃদ্ধি নিয়ে বরাবরই উদ্বেগ প্রকাশ করেন রামদেব। এর আগেও এ বিষয়ে নানা মন্তব্য করেছেন তিনি। এ দিনও তাঁর বক্তৃতায় জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি উঠে আসে। রামদেবের কথায়, “এ দেশে যাঁরা আমার মতো বিয়ে করেননি, তাঁদের বিশেষ সম্মান দেওয়া উচিত। এমনকি, আমাদের মতো সাধুরা, যাঁরা বিয়ে করেননি, তাঁদের সম্মানিত করা উচিত।”

কিন্তু যাঁরা ইতিমধ্যেই বিয়ে করে ফেলেছেন, তাঁদেরও নিরাশ হওয়ার কারণ নেই। শুধুমাত্র সন্তানের সংখ্যা দুইয়ের মধ্যে রাখলেই হবে। না হলে সরকারের উদ্দেশে রামদেবের দাওয়াই, “যাঁরা বিয়ে করেছেন এবং দু’টির বেশি সন্তান রয়েছে, তাঁদের ভোটের অধিকার থাকা উচিত নয়।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘পুনর্জন্ম’ নিন, প্রয়াত এন টি আরকে খোলা চিঠি লিখলেন স্ত্রী

আরও পড়ুন: এক সময় আত্মহত্যার কথা ভাবতাম, বলছেন এআর রহমান

https://www.ndtv.com/india-news/reward-those-who-remain-single-ramdevs-carrot-and-stick-on-population-1942691?pfrom=home-topscroll


জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের প্রয়োজনীয়তার কথা উল্লেখ করে রামদেব আরও বলেন, “আমাদের বেদশাস্ত্রে কোনও কোনও ক্ষেত্রে এক জন দম্পতির ১০টি সন্তানের জন্ম দেওয়ারও অনুমতি রয়েছে। ফলে যাঁরা ক্ষমতাবান এবং যাঁদের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, তাঁরা এমনটা করতেই পারেন।” তবে এমনটা করা এ যুগে কি যুক্তিযুক্ত হবে, সে নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। তাঁর কথায়, “দেশের জনসংখ্যা ১২৫ কোটি পার হয়ে গিয়েছে। ফলে আমাদের আর জনসং‌খ্যা বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তা নেই।”

(কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, গুজরাত থেকে মণিপুর - দেশের সব রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদের দেশ বিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement