Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

কৃষি আইন নিয়ে সুর বদল পওয়ারের

বিতর্কিত ৩ কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে ২০২০ সালের নভেম্বর থেকে দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা সীমানায় অবস্থান-বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকেরা।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৩ জুলাই ২০২১ ০৭:১৬
এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার।

এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার।
ফাইল চিত্র।

কেন্দ্রের তিন কৃষি আইন নিয়ে এ বার উল্টো সুর শোনা গেল এনসিপি নেতা শরদ পওয়ারের মুখে। আজ দূরদর্শনের এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘‘তিন কৃষি আইন পুরোপুরি বাতিল না করে বরং বিতর্কিত বিষয় বাদ দেওয়া যায়। কৃষকদের আপত্তির বিষয়গুলি সংশোধন করা যায়।’’ পওয়ারের এই পরিবর্তিত অবস্থানকে স্বাগত জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর। পাশাপাশি, তিনি জানিয়েছেন, সরকার কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত। তবে কোনও অবস্থাতেই কৃষি আইন বাতিল করা হবে না।

বিতর্কিত ৩ কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে ২০২০ সালের নভেম্বর থেকে দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা সীমানায় অবস্থান-বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকেরা। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার কৃষি সংগঠন ও কৃষক নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা চালালেও সমস্যা মেটেনি।

এ বছর ফ্রেব্রুয়ারিতে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী শরদ পওয়ারের দল তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছিল। তার মাসখানেক আগে টুইটারে পওয়ার কৃষি আইনের কড়া সমালোচনা করে বলেছিলেন, ‘এই আইন ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের পরিপন্থী এবং দেশের মান্ডি ব্যবস্থাকে দুর্বল করে তুলবে।’ সেই অবস্থান থেকে সরে এসে আজকের মন্তব্য করেছেন পওয়ার। যা রাজনৈতিক মহল যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে। কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর গ্বালিয়রে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে বলেন, ‘‘তিন কৃষি আইন কৃষকদের জীবনে যুগান্তকারী পরিবর্তন আনবে। সরকার কৃষক সংগঠন ও নেতাদের সঙ্গে ১১ বার আলোচনায় বসেছে। কৃষি আইন প্রত্যাহারের বিষয়টি ছাড়া ফের কথা বলতে প্রস্তুত।’’ তাঁর দাবি, অধিকাংশ রাজ্য সরকার ও কৃষকেরা এই আইনের পক্ষে রয়েছেন।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement