Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

গণপ্রহার থেকে মুসলিম যুবককে বাঁচিয়ে সকলের ‘হিরো’ এই শিখ পুলিশকর্মী

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৬ মে ২০১৮ ১৮:০৭
শিখ পুলিশ অফিসার গগনদীপ সিংহ জনতার রোষ থেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন যুবককে (চিহ্নিত)। ছবি সৌজন্য ইউটিউব।

শিখ পুলিশ অফিসার গগনদীপ সিংহ জনতার রোষ থেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন যুবককে (চিহ্নিত)। ছবি সৌজন্য ইউটিউব।

দুটো ঘটনা যেন মিলিয়ে দিল উত্তরের দুই রাজ্যকে। একটি উত্তরাখণ্ডে, অপরটি উত্তরপ্রদেশে।দুই রাজ্যেই মুসলিম যুবককে গণপ্রহারের অভিযোগ উঠেছে। কাকতালীয় ভাবে কারণ অনেকটা একই রকম।

এক যুবককে ঘিরে রয়েছে এক দল মানুষ। হঠাত্ই যুবকের উপর আছড়ে পড়ল পুরো ভিড়টা। দমাদ্দম কিল, চড়, ঘুসি উড়ে এল ভিড়ের মধ্যে থেকে। যুবকটি নিজেকে প্রাণপণে বাঁচানোর যত চেষ্টা করছে, ততই মারমুখী হয়ে উঠে ভিড়ের মধ্যে থাকা মানুষগুলো।

মারমুখী জনতার রোষ থেকে ছেলেটিকে বাঁচানোর জন্য এগিয়ে আসতে দেখা যায় এক শিখ পুলিশকর্মীকে। পুলিশ তো কী হয়েছে, উন্মত্ত মানুষগুলোর মার গিয়ে পড়ে তাঁর উপরও। কিন্তু হাল ছাড়েননি ওই পুলিশ কর্মী। নিজে ‘ঢালের’ মতো দাঁড়িয়ে জনতার মার থেকে বাঁচিয়েছে ওই যুবককে। গগনদীপ সিংহ নামে সেই পুলিশকর্মীই এখন সকলের ‘হিরো’।

Advertisement

দেখুন সেই ভাইরাল ভিডিয়ো

ভিডিয়ো সৌজন্য ইউটিউব।

আরও পড়ুন: গোয়া সৈকতে প্রেমিকের সামনে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ, ছবি তুলে টাকা দাবি

আরও পড়ুন: বাদুড় নয়! নিপার বাহক তবে কে? রহস্য বাড়ল

ঘটনাস্থল উত্তরাখণ্ডের রামনগর। গত মঙ্গলবার সেখানেই এক মন্দিরের কাছে এক মুসলিম যুবককে গণপ্রহারের অভিযোগ উঠেছে। যুবকটি হিন্দু এক বান্ধবীর সঙ্গে সেখানে গিয়েছিলেন। হঠাত্ই এক দল লোক তাঁদের ঘিরে ধরে। তার পরই শুরু হয় বেদম মার।তখনই গগনদীপ সিংহ নামে ওই পুলিশ অফিসার এসে যুবকটিকে উদ্ধার করেন। যুবককে মারধর এবং উন্মত্ত জনতার হাত থেকে যুবককে বাঁচানোর ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে পড়ে। পুলিশ অফিসারের সাহসিকতা প্রশংসিত হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

শুক্রবারে ঠিক এই ধরনের ছবি ধরা পড়েছে উত্তরপ্রদেশে কানপুরে। হিন্দু সম্প্রদায়ের এক তরুণীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ায় এক মুসলিম যুবককে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠেছে এক দল লোকের বিরুদ্ধে। দু’মিনিটের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হামলাকারীরা যুবকের কাছে জানতে চাইছে কী সম্পর্ক রয়েছে তাঁদের মধ্যে? যুবকটি উত্তর দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই শুরু হয় চড়-থাপ্পড়। ওই ভিডিওতেই হামলাকারীদের বলতে শোনা যায়, “যদি তোর জীবন বরবাদ না করে দিতে পারি, তা হলে আমাদের নামই বদলে দেবো!” হুমকির পাশাপাশি চলছিল মারধরও। যদিও এই ঘটনায় অভিযুক্তদের পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।



Tags:
Uttarakhand Uttar Pradesh Crime Kanpurকানপুর Sikh Policemanউত্তরাখণ্ড

আরও পড়ুন

Advertisement