Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Prashant Kishor

লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূলের ‘পরামর্শদাতা’ হিসাবে কি ফিরে আসছেন প্রশান্ত কিশোর? চলছে জল্পনা

পশ্চিমবঙ্গে গত বিধানসভা ভোটের পরই পরামর্শদাতার ভূমিকা থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন পি কে। আনুষ্ঠানিক ভাবে ‘আইপ্যাকে’র সঙ্গে যুক্ত থাকবেন না বলেও জানিয়ে দেন তিনি।

An image of Prashant Kishore

প্রশান্ত কিশোর (পি কে)। —ফাইল চিত্র।

রবিশঙ্কর দত্ত
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৭:৩২
Share: Save:

লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের ‘পরামর্শদাতা’ হিসেবে ফিরতে পারেন প্রশান্ত কিশোর (পি কে)। ইতিমধ্যেই বিহারে নিজের রাজনৈতিক কাজকর্মে ব্যস্ত হয়ে পড়লেও প্রশান্তের এই ‘প্রত্যাবর্তন’ নিয়ে দলের অন্দরে জল্পনা দানা বেঁধেছে। দলীয় সূত্রে অবশ্য এ সম্ভাবনা সরাসরি অস্বীকার করা হয়নি। তবে বলা হয়েছে, প্রশান্ত সব সময়ই সঙ্গে আছেন।

পশ্চিমবঙ্গে গত বিধানসভা ভোটের পরই পরামর্শদাতার ভূমিকা থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন পি কে। আনুষ্ঠানিক ভাবে ‘আইপ্যাকে’র সঙ্গে যুক্ত থাকবেন না বলেও জানিয়ে দেন তিনি। তবে তাঁর তৈরি সংস্থা ‘আইপ্যাক’ তৃণমূলের পরামর্শদাতা হিসেবে রয়ে গিয়েছে। লোকসভা ভোটের আগে প্রয়োজনীয় সাংগঠনিক প্রস্তুতি চূড়ান্ত করার কাজে সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ‘পি কে’-র সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এই সম্ভাবনাকে অবশ্য আলাদা করে দেখছেন না তৃণমূল নেতৃত্ব। দলের এক নেতার কথায়, ‘‘এ ধরনের পারস্পরিক সম্পর্ক এক বার তৈরি হলে তা থেকে যায়। ফলে পি কে কখনও একেবারেই বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিলেন, তা নয়।’’ তাঁর কথায়, ‘‘আইপ্যাক তো কাজ করছেই। এ ব্যাপারে তাদের সাফল্য প্রতিষ্ঠিত। এবং বিশেষ ক্ষেত্রে এখনও তাঁর পরামর্শ নেওয়া হয়। তবে এ একেবারেই পেশাদারি মত বিনিময়।’’

সর্বভারতীয় স্তরে রাজনীতিতে সম্প্রতি যে সব ঘটনাবলি ঘটে চলেছে, তা নিয়ে ভোটকুশলী ‘পি কে’-র মত ও বিশ্লেষণ সামনে এসেছে। তবে এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন সেরে নিজের রাজ্য বিহারে ‘জন সুরাজ’ নামে একটি সংগঠন গড়ে মূলত ‘রাজনৈতিক সচেতনতা বৃদ্ধি’র কাজেই রয়েছেন তিনি। এই অবস্থায় একটি সূত্রের দাবি, লোকসভা ভোটের আগেই তাঁকে সরাসরি দলের কাজে পেতে পারে তৃণমূল।

রাজ্য স্তরে সংগঠনের নানা কাজ ছাড়াও সদ্যসমাপ্ত পঞ্চায়েত ভোটেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে ‘আইপ্যাক’। জেলা ভিত্তিক নিযুক্ত প্রতিনিধিদের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই, নির্বাচনী প্রচার ও বোর্ড গঠনের ক্ষেত্রেও সংস্থার মত বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে। পঞ্চায়েত ভোটের আগেও দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় টানা দু’মাসের যে জনসংযোগ কর্মসূচি নিয়েছিলেন, তারও প্রধান ব্যবস্থাপনায় ছিল ‘আইপ্যাক’ই। তবে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বহু জায়গায় ‘আইপ্যাক’-এর হস্তক্ষেপ নিয়ে দলের অন্দরে অসন্তোষ রয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলে সাংগঠনিক রদবদলের মতো পরামর্শদাতা সংস্থা ‘আইপ্যাকে’র জেলা স্তরেও দায়িত্ব রদবদল হয়েছে বলেও দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE