Advertisement
১৭ জুন ২০২৪
Parliament Attack

Terrorist Attack: ভারতকে বার্তা দিতেই কি হানা ১৩ ডিসেম্বর

সেনার হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে গত কালের হামলায় আহত কনস্টেবল রামিজ় আহমেদের। ফলে গত কালের হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ জনে।

জঙ্গিহানায় হত পুলিশ রামিজ় আহমেদ বাবার শেষকৃত্যে স্থানীয়েরা। মঙ্গলবার কাশ্মীরের গান্ডেরবালে।

জঙ্গিহানায় হত পুলিশ রামিজ় আহমেদ বাবার শেষকৃত্যে স্থানীয়েরা। মঙ্গলবার কাশ্মীরের গান্ডেরবালে। ছবি পিটিআই।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ ০৬:৩৫
Share: Save:

কাশ্মীরে গত কাল পুলিশের বাসে হামলা চালিয়ে জঙ্গিরা ভারতীয় বাহিনী তথা সরকারকে বার্তা দিতে চেয়েছে বলে মনে করছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। গত কাল, ১৩ ডিসেম্বর ছিল সংসদে জঙ্গি হামলার বিশতম বার্ষিকী। তাতে পাকিস্তানি মদতে পুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের শাখা সংগঠন কাশ্মীর টাইগার্স গ্রুপের হাত রয়েছে বলে জানিয়েছে জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ। সংসদে হামলাতেও জড়িত ছিল জইশ। সূত্রের মতে, গত কাল সংসদ হামলার বর্ষপূর্তির দিন ভারতীয় বাহিনীকে বার্তা দিতেই পরিকল্পিত ভাবে ওই হামলা চালানো হয়েছে।

আজ সেনার হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে গত কালের হামলায় আহত কনস্টেবল রামিজ় আহমেদের। ফলে গত কালের হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩ জনে। গত কাল সেনা হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছিল অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইনস্পেক্টর গুলাম হাসান ও কনস্টেবল শফিক আলির। অন্য দিকে এ দিন জম্মুর পুঞ্চে বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছে পাকিস্তানি জঙ্গি আবু জ়ারার। সেনা জানিয়েছে, সুরানকোট সেক্টরের বুফ্লিয়াজ় এলাকায় জ়ারার ও তার সঙ্গীর খোঁজ পায় বাহিনী। জ়ারার বাহিনীকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে সংঘর্ষ শুরু হয়। তাতে নিহত হয় জ়ারার। তার সঙ্গী পালিয়েছে। জ়ারারের কাছ থেকে একে-৪৭ রাইফেল, চারটি ম্যাগাজ়িন, একটি গ্রেনেড ও ভারতীয় নোটে বেশ কিছু অর্থ পাওয়া গিয়েছে। সেনা জানিয়েছে, পীর পঞ্জালের দক্ষিণে ফের জঙ্গি কার্যকলাপ শুরু করতে জ়ারারকে কাশ্মীরে পাঠানো হয়েছিল। ওই এলাকার জঙ্গলে গা ঢাকা দিয়ে থাকায় দীর্ঘদিন ধরে তার নাগাল পাওয়া যাচ্ছিল না। তবে শেষ পর্যন্ত স্থানীয়দের দেওয়া খবরের ভিত্তিতে তার খোঁজ পাওয়া গিয়েছে।

সূত্রের মতে, কাশ্মীরে স্থানীয় যুবকদের জঙ্গি দলে নাম লেখানোর সংখ্যা আগের চেয়ে বেড়ে যাওয়ায় উদ্বিগ্ন কেন্দ্র। জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ ও প্রশাসনকে পাঠানো নির্দেশে নতুন করে কাশ্মীরি যুবকদের জঙ্গি হওয়ার যে প্রবণতা তৈরি হয়েছে তা যে কোনও মূল্যে রোখার উপরে জোর দিয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার।

কাশ্মীরে শীতের মধ্যেও জঙ্গি হামলার ঘটনা বেড়েছে। তবে আজ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক পাল্টা দাবিতে লোকসভায় জানিয়েছে, দু’বছর আগে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের পর থেকে কাশ্মীরে জঙ্গি তৎপরতা আগের চেয়ে হ্রাস পেয়েছে। পরিসংখ্যান তুলে ধরে সরকারের দাবি, সীমান্তে কড়া পাহারা, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে অনুপ্রবেশ কমেছে। যার ফলে উপত্যকায় সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপও কমেছে। যদিও আজ লোকসভায় সরকারের কাশ্মীর নীতির ব্যর্থতা নিয়ে সরব হন বিরোধী দলনেতা অধীর চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘‘বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের পরে সরকারের দাবি ছিল খুব দ্রুত উপত্যকায় শান্তি ফিরে আসবে। তা হয়নি। উল্টে কাশ্মীরে জঙ্গি উপদ্রব বেড়েই চলেছে। যা দেশের নিরাপত্তার জন্য চিন্তার।’’

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ সূত্রের খবর, কাশ্মীরে বাহিনীর উপরে সম্ভাব্য হামলার সম্ভাবনা নিয়ে গত সপ্তাহেই সতর্ক করেছিলেন গোয়েন্দারা। তবে কোথায়, কখন হামলা হতে পারে তা নিয়ে নির্দিষ্ট তথ্য ছিল না। গত কালের হামলার পরে কাশ্মীরে সুরক্ষা বাড়ানো হয়েছে। পুলওয়ামা হামলার কায়দায় গাড়িবোমা হানার সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি জম্মু-কাশ্মীর পুলিশ সূত্রের।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Parliament Attack Srinagar jammu & kashmir
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE