Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Tripura: ত্রিপুরায় তৃণমূল সাংসদ সুস্মিতার গাড়ি ভাঙচুর, বললেন, বিপ্লব দেব একটা ‘নপুংসক’!

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ অক্টোবর ২০২১ ১৫:৪৪
নতুন উত্তাপ ত্রিপুরায়।

নতুন উত্তাপ ত্রিপুরায়।
নিজস্ব চিত্র

ফের বিজেপি-তৃণমূল সঙ্ঘাতে উত্তপ্ত ত্রিপুরা। শুক্রবার ত্রিপুরায় তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ সুস্মিতা দেবের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ উঠেছে। তাঁর ব্যাগ ছিনতাই এবং মোবাইল ভেঙে দেওয়ার অভিযোগও তুলেছেন সুস্মিতা। সংবাদমাধ্যমের সামনে সেই অভিযোগে সরব হওয়ার সময় ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবকে ‘হিজড়া’ (নপুংসক) বলে আক্রমণ করেন সুস্মিতা। তিনি বলেন, ‘‘বিপ্লব দেব একটা হিজড়া। ব্যালটে লড়াই না করে গাড়িতে হামলা করছে।’’ ত্রিপুরা বিজেপি অবশ্য এই ঘটনাকে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের প্রকাশ বলে দাবি করেছে। একই সঙ্গে বিপ্লব সম্পর্কে সুস্মিতার মন্তব্যের নিন্দা করেছে বিজেপি।

বৃহস্পতিবার থেকেই ত্রিপুরায় জনসংযোগ কর্মসূচি শুরু করেছে তৃণমূল। আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলার কথা। তাতেই অংশ নিয়ে শুক্রবার ‘ত্রিপুরার জন্য তৃণমূল’ প্রচারে বার হন সুস্মিতা। অভিযোগ, শুক্রবার দুপুর দেড়টা নাগাদ পশ্চিম ত্রিপুরার আমতলি বাজারের কাছে তাঁর গাড়িতে কয়েক জন বিজেপি কর্মী হামলা চালায়। শুধু গাড়ি ভাঙচুরই নয়, সুস্মিতা দেবের ব্যাগ ছিনতাই করা হয়। সুস্মিতা বলেন, ‘‘আক্রমণকারীরা সবাই বিজেপি কর্মী। কারও মুখে মাস্কও পরা ছিল না।’’

Advertisement

এ নিয়ে আমতলা থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন সুস্মিতা। প্রতিবাদ করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘বিপ্লব দেবের নেতৃত্বে বিরোধীদের উপরে আক্রমণের নতুন রেকর্ড তৈরি হয়েছে। বিজেপি-র গুন্ডারা এক জন মহিলা রাজ্যসভার সাংসদকে যে ভাবে হেনস্থা করেছে তা লজ্জার এবং রাজনৈতিক সন্ত্রাসের শামিল।’ পাশাপাশি ত্রিপুরায় তৃণমূলের সংগঠন শক্তিশালী করার লক্ষ্য নেওয়া অভিষেক লিখেছেন, ‘সময় হয়ে এসেছে। ত্রিপুরার মানুষ এর জবাব দেবেন।’

ত্রিপুরা বিজেপি-র মুখপাত্র সুব্রত চক্রবর্তী আনন্দবাজার অনলাইনকে বলেন, ‘‘তৃণমূল বাংলা নিয়ে ভাবুক। এমন আক্রমণ বিজেপি-র সংস্কৃতি নয়। এটা তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের প্রকাশ। কমিটি গঠন নিয়ে গোলমাল চলছে পুজোর আগে থেকেই। তারই প্রকাশ ঘটেছে আমতলি বাজার এলাকায়।’ একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে ‘নপুংসক’ বলা নিয়ে সুব্রত বলেন, ‘‘এটা তৃণমূলের কাছে প্রত্যাশিত। বাংলা দেখেছে কী ভাবে দেশের প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে আক্রমণ করা হয়েছে। সাধারণের কাছে যা অশালীন, সেটাই তৃণমূলের সংস্কৃতি।’’

আরও পড়ুন

Advertisement