Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
Forest Departemnt

Maharashtra: অবশেষে ধরা পড়ল ২৫০ কুকুরছানা ‘খুনে’ অভিযুক্ত দুই হনুমান, ছেড়ে দেওয়া হল নাগপুরের জঙ্গলে

বর্তমানে ওই গ্রামে আর কোনও কুকুরছানাই বেঁচে নেই। অভিযোগ, গত মাসে অন্তত ২৫০ কুকুকছানাকে মেরে ফেলেছে ‘ক্ষিপ্ত’ হনুমানের দল।

খাঁচাবন্দি হনু।

খাঁচাবন্দি হনু। ছবি টুইটার থেকে।

সংবাদ সংস্থা
নাগপুর শেষ আপডেট: ২০ ডিসেম্বর ২০২১ ০৯:০১
Share: Save:

মহারাষ্ট্রের বীড় জেলার গ্রামে প্রায় ২৫০ কুকুরছানাকে উঁচু থেকে ছুড়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছিল এক দল হনুমানের বিরুদ্ধে। গ্রামবাসীদের দাবি ছিল, কুকুরদলের হাতে সন্তানের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতেই এ রকম কাণ্ড ঘটাচ্ছে হনুমানেরা। সেই ঘটনায় অবশেষে দু’টি হনুমানকে ধরতে সক্ষম হয়েছে বনদফতর। সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে এই খবর।

হনুমানদের আটক নিয়ে বন দফতরের অফিসার সচিন কাঁদ বলেছেন, ‘‘বীড় জেলায় কুকুরছানাদের হত্যার ঘটনায় জড়িত দুই হনুমানকে ধরা হয়েছে। নাগপুরের বন দফতরের দল ধরেছে তাদের।’’ ধৃত দুই হনুমানকে নাগপুরের কাছে একটি জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

মজলগাঁও থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে রয়েছে লাভুল গ্রাম। হাজার পাঁচেক মানুষের বাস ওই গ্রামে। গ্রামবাসীদের দাবি, বর্তমানে ওই গ্রামে আর কোনও কুকুরছানাই বেঁচে নেই। অভিযোগ, গত মাসে অন্তত ২৫০ কুকুকছানাকে মেরে ফেলেছে ‘ক্ষিপ্ত’ হনুমানের দল। গ্রামবাসীরা জানাচ্ছেন, হনুমানদের প্রতিশোধের জেরেই এই অবস্থা। তাঁরা জানিয়েছেন, একটি হনুমানেরছানাকে এক দল কুকুর মেরে ফেলার পর থেকেই এই ঘটনার সূত্রপাত।

হনুমানের দল গ্রামের বাচ্চা, স্কুলছাত্রদের উপর আক্রমণ করলে বন দফতরের দ্বারস্থ হয়েছিলেন গ্রামবাসীরা। তার পরই দুই হনুকে ধরতে সমর্থ হল বন দফতর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.