×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

জঙ্গি নিকেশে আমেরিকার পথ অনুসরণ করতে হবে, বলছেন বিপিন রাওয়াত

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৬ জানুয়ারি ২০২০ ১৫:০৩
চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) বিপিন রাওয়ত। ফাইল চিত্র

চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) বিপিন রাওয়ত। ফাইল চিত্র

সন্ত্রাসের সঙ্গে লড়াই শেষ হয়নি এখনও। বলছেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) বিপিন রাওয়ত। তাঁর আরও দাবি, সন্ত্রাস দমন করতে হলে প্রথমে বোঝা জরুরি সন্ত্রাসের মূলটা কোথায়। সরাসরি নাম না করেই বৃহস্পতিবার পাকিস্তানকে একঘরে করার ডাকও দিয়েছেন বিপিন রাওয়াত।

এ দিন দিল্লির একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মুখ্য অতিথি হিসেবে যোগ দেন বিপিন রাওয়াত। সেখানেই তিনি বলেন, ‘‘সন্ত্রাস দমন করতেই হবে। ৯/১১ ঘটনার পরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যে ভাবে সন্ত্রাসী খতম শুরু করেছিল সেই তৎপরতা নিলেই এই কাজ সম্ভব।’’ বিপিন রাওয়াত মনে করেন এই কাজ করতে প্রথমেই একঘরে করে দিতে হবে তাদের যারা সন্ত্রাসে মদত দিয়ে আসছে, অর্থ জোগাচ্ছে সারবছর ধরে।

এরপরেই আসে প্রতিবেশী দেশের প্রসঙ্গ। পাকিস্তানের নাম না করে রাওয়াত বলেন, ‘‘সন্ত্রাসবাদের এত বাড়বাড়ন্তের কারণ কিছু রাষ্ট্র। তারা আততায়ীদের হাতে অস্ত্র তুলে দিচ্ছে। তাদের অর্থ দিচ্ছে। ফলে আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না।’’

Advertisement

সন্ত্রাসদমনে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স-এর উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন বিপিন রাওয়াত। পাকিস্তান বিষয়ে এফএটিএফ-এর সক্রিয়তার কারণেই তাঁর স্তুতি, মনে করছেন কূটনীতিবিদরা।

আপাতত ধূসর তালিকায় রয়েছে পাকিস্তান। সূত্রের খবর, আইএমএফ, বিশ্ব ব্যাঙ্ক, এডিবি, ইউরোপীয় ইউনিয়নকে বার্তা দেওয়া হয়েছে, ফেব্রুয়ারির দিকে নজর রেখে প্রস্তুতি শুরু করে দিতে। যদি সন্ত্রাসে পুঁজি জোগানের প্রশ্নে ওই সময়ের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা পূরণে ব্যর্থ হয় ইসলামাবাদ, তা হলে দ্রুত নিষেধাজ্ঞা বহাল করতে হবে।

Advertisement