×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৭ জুন ২০২১ ই-পেপার

বিমার সাড়ে তিন কোটি চাই, তাই ষড়যন্ত্র করে স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী

সংবাদ সংস্থা
চেন্নাই ১১ এপ্রিল ২০২১ ১৮:৫১


প্রতীকী ছবি

টাকা চাই। তাই স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী। তামিলনাড়ুর ইরোদ জেলায় ঘটে যাওয়া এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে বাজারে দেনা ছিল প্রয়াত কে রঙ্গরাজের স্ত্রী যোথিমনির। সেই কারণেই এক আত্মীয় সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে সে।

ঘটনার দিনই অন্য এক দুর্ঘটনায় আহত রঙ্গরাজ ছাড়া পেয়েছিলেন হাসপাতাল থেকে। যোথিমনি ও তার আত্মীয় রাজা রঙ্গরাজকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে একটি গাড়িতে করে থুডুপথির দিকে যাত্রা করে। পুলিশ তদন্ত করে জানতে পেরেছে, রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ তারা ভালাসুপলায়মের কাছে পৌঁছে যায়। সেখানে ফাঁকা রাস্তায় গাড়ি দাঁড় করিয়ে অসুস্থ রঙ্গরাজকে টেনে বের করে আনে দু’জনে। তারপর পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরের দিন সকালে পুলিশে খবর দেয় রাজা। বলে দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে রঙ্গরাজের।

কিন্তু মৃত্যু নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে গিয়ে রঙ্গরাজের বয়ানে অসঙ্গতি ধরা পড়ে পুলিশের চোখে। পুলিশ জানতে পারে, একটি পেট্রোল পাম্প থেকে একটি বিশেষ ক্যানে পেট্রোল কিনেছিল রাজা। খতিয়ে দেখা হয় সিসিটিভি ভিডিয়ো ফুটেজ। তারপরেই পুলিশে জেরার সামনে ভেঙে পড়ে রাজা।

Advertisement

পরবর্তীতে পুলিশ জানতে পারে, বাজারে প্রায় ১.৫ কোটি টাকা দেনা হয়েছে মৃত রঙ্গরাজের স্ত্রী যোথিমনির। বিমার টাকা হাতানোর জন্য সে রাজার সঙ্গে পরামর্শ করে এই পরিকল্পনা করেছিল। রাজাকে ১ লক্ষ টাকা দেওয়ার লোভও দেখিয়েছিল যোথিমনি। ঘটনার দিন রাতে, এই দু’জন মিলে রঙ্গরাজকে পুড়িয়ে মেরেছিল রাস্তার পাশে।

Advertisement