চাইল্ড পর্নোগ্রাফি নিয়ে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে বিশ্বের সমস্ত দেশেই। কিন্তু মেসেজিং অ্যাপ ব্যবহার করে কিছু মানুষ এই ধরনের পর্নোগ্রাফি সমাজে ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যান। এই কাজের জন্য যাতে হোয়াটসঅ্যাপের মতো বৃহত্ প্ল্যাটফর্ম ব্যবহৃত না হয় সে জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিল ফেসবুকের এই সংস্থা।

চাইল্ড পর্নোগ্রাফির মতো অসামাজিক কার্যকলাপ রুখতে গত ১০ দিনে প্রায় ১ লক্ষ ৩০ হাজার অ্যাকাউন্ট ব্লক করল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। এই অ্যাকাউন্টগুলিকে ওই মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে। ব্লক করে দেওয়া ওই সব অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত তথ্য আমেরিকার ‘ন্যাশনাল সেন্টার ফর মিসিং অ্যান্ড এক্সপ্লয়টেড চিলড্রেন’ সংস্থাকে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সংস্থা।

হোয়াটসঅ্যাপ ‘এন্ড টু এন্ড এনক্রিপশন’ পদ্ধতিতে কাজ করে। তাই এক ব্যবহারকারী অন্য ব্যবহারকারীকে কী বার্তা পাঠালো তা কর্তৃপক্ষের পক্ষে জানা সম্ভব নয়। তাই হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপের মাধ্যমে যারা চাইল্ড পর্নোগ্রাফির আদানপ্রদান করা অ্যাকাউন্ট চিহ্নিত করেছে সংস্থা। এ জন্য ‘ফটোডিএনএ’ পদ্ধতি ব্যবহার করেছেতারা। আপত্তিকর ছবিকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্যএই পদ্ধতি ব্যবহার করে ফেসবুকও।

আরও পড়ুূন: টিফিন কিনতে গিয়ে পাওয়া ‘ভুল’ কয়েন বিক্রি হল দেড় কোটি টাকায়!

১ লক্ষ ৩০ হাজার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার পর হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘শিশুদের যৌন নির্যাতনের ব্যাপারে হোয়াটসঅ্যাপের মনোভাব কঠোর। তাই এই কাজ রুখতে আমরা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা-সহ সর্বোচ্চস্তরের প্রযুক্তি ব্যবহার করছি। এ নিয়ে ভারত-সহ বিশ্বের সমস্ত দেশের আইন প্রণয়নকারী সংস্থার অনুরোধে আমরা সাড়া দিতে প্রস্তুত। এই সমস্যা রুখতে সমস্ত প্রযুক্তি সংস্থা এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।’

আরও পড়ুূন: পৃথিবীর সব থেকে দামি বিচ্ছেদ! ৪.২ লক্ষ কোটি টাকা খোরপোশ দিচ্ছেন আমাজন মালিক

 

(সারাবিশ্বের সেরা সব খবরবাংলায় পড়তে চোখ রাখতে পড়ুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)