Advertisement
০১ ডিসেম্বর ২০২২
Make Up Hacks

পুজোর ভিড়েও দীর্ঘ ক্ষণ মেক আপ টিকিয়ে রাখতে চান? কোন ভুলগুলি এড়িয়ে চলবেন

অনেক ক্ষণ ধরে মন দিয়ে মেক আপ করলেন। অথচ বাড়ি থেকে বেরোনোর ঘণ্টা খানেকের মধ্যেই সব সাজ ভেস্তে গেল। মেক আপ গলতে শুরু করল। এমনটা হলে কার-ই বা ভাল লাগে? তবে উপায়?  

বেস মেক আপে সামান্য ভুল ত্রুটি আপনার সম্পূর্ণ সাজটা ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই বিগড়ে দিতে পারে।

বেস মেক আপে সামান্য ভুল ত্রুটি আপনার সম্পূর্ণ সাজটা ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই বিগড়ে দিতে পারে। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৬:১০
Share: Save:

এক দিকে লাল লিপস্টিক ট্রেন্ড করছে, অন্য দিকে স্মোকি আই মেক আপ পুরো চেহারাই বদলে দিতে পারে। কী ধরনের মেক আপ করে পুজোর ভিড়ে নজর কাড়তে পারেন সে বিষয় নানা তথ্য আন্তর্জাল খুললেই আমাদের সামনে আসে। কিন্তু জানেন কি মেক আপের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এর কোনওটাই নয়? বেস মেক আপ যদি নিখুঁত ভাবে না করা হয় তা হলে কখনই দেখতে সুন্দর লাগবে না। আর বেস মেক আপে সামান্য ভুল ত্রুটি আপনার সম্পূর্ণ সাজটা ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই বিগড়ে দিতে পারে।

Advertisement

অনেক ক্ষণ ধরে মন দিয়ে মেক আপ করলেন। অথচ বাড়ি থেকে বেরোনোর ঘণ্টা খানেকের মধ্যেই সব সাজ ভেস্তে গেল। মেক আপ গলতে শুরু করল। এমনটা হলে কার-ই বা ভাল লাগে? সাজার সময়ে কিছু ছোটখাটো ভুলের জন্যই এমনটা ঘটে আপনার সঙ্গে। কোন কোন ভুলের জন্য এমনটা হয় জেনে নিন।

১) প্রাইমার ব্যবহার না করা: অনেকেই মেক আপ করার সময়ে প্রাইমার ব্যবহার করেন না। আর এই কারণেই সমস্যাটা হয়। চেহারায় ফুরফুরে ভাব আনতে প্রাইমার কাজে আসে। খুব সাজতে ইচ্ছা না করলে প্রাইমারের উপর ব্লাশার ও কম্প্যাক্ট দিয়েও সম্পূর্ণ করতে পারেন সাজ। প্রাইমার ত্বক চকচকে করে তোলে, সাজে ঔজ্জ্বল্য আসে। মেকআপ দীর্ঘ ক্ষণ টিকিয়ে রাখতেও প্রাইমারের জুড়ি মেলা ভার।

২) লিপস্টিক ব্যবহারের সময়: বেস মেক আপ শেষ করার আগেই অনেকে লিপস্টিক ব্যবহার করে ফেলেন। এর ফলে লিপস্টিক দীর্ঘস্থায়ী হয় না। মেক আপের একে বারে শেষ পর্যায় লিপস্টিক ব্যবহার করবেন।

Advertisement
ফাউন্ডেশনের কাজ স্কিন টোন সমান দেখানো।

ফাউন্ডেশনের কাজ স্কিন টোন সমান দেখানো। ছবি: সংগৃহীত

৩) ব্লাশের ব্যবহার: ইদানীং ‘নো মেক আপ লুক’-এর চল বেড়েছে। এই ক্ষেত্রে কিন্তু অনেকেই ব্লাশ ব্যবহার এড়িয়ে চলেন। ‘নো মেক আপ লুক’-এও হালকা গোলাপি বা পিচ রঙের ব্লাশ ব্যবহার করতে হবে তবে অবশ্যই পরিমিত মাত্রায়।

৪) সঠিক ফাউন্ডেশন বাছাই: ফাউন্ডেশনের কাজ স্কিন টোন সমান দেখানো। যাতে পুরো মুখের কমপ্লেকশন এক রকম দেখায়। দাগ, ছোপ ঢেকে যায়। কিন্তু যদি পুরো মুখে ফাউন্ডেশন লাগানোর পর দেখেন নিজের মুখটাই অন্য রকম দেখতে লাগছে তা হলে আপনি ভুল করছেন। রোদে বেরোলে মনে হবে মাস্ক লাগিয়েছেন মুখে। ত্বকের আন্ডারটোন চিনতে শিখুন। সেই অনুযায়ী সঠিক ফাউন্ডেশনের শেড বেছে নিন। কেনার সময় চোয়ালের হাড়ে লাগিয়ে দেখুন। যেই শেডটি সবচেয়ে মানানসই মনে হবে, সেটাই কিনুন।

৫) চোখ ও ঠোঁটের সাজ: পুজোর সময় হালকা মেক আপ করতেই পছন্দ করেন বেশির ভাগ মহিলা। সে ক্ষেত্রে হয় ঠোঁটে উজ্জ্বল রঙের লিপস্টিক ব্যবহার করুন আর না হয় চোখের সাজ চড়া করুন। দুটোই একসঙ্গে কখনও করবেন না, উগ্র দেখাবে আপনার সাজ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.