• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

গ্যাসের বার্নার খোলা রেখেই সিলিন্ডার অফ করেন?

cylinder
সিলিন্ডার বিস্ফোরণ এড়াতে পারেন ক’টা জরুরি বিষয় মাওথায় রাখলেই। ছবি: শাটারস্টক।

বাড়ি সুরক্ষিত রাখতে আমরা কত কিছুই না করি! জানালা-দরজা মজবুত করা, তালা-চাবির ব্যবহার, সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানো— এ সব হওয়ার পরেও কোথাও কোথাও কিছু খামতি থেকেই যায়। রোজের জীবনযাত্রায় মধ্যেই এমন কিছু কাজ আমরা অজান্তেই করি, যা কিন্তু বিপদ ডেকে আনতে পারে সহজেই। কখনও ভেবে দেখেছেন কি, রান্নাঘরের গ্যাস আর সিলিন্ডার ব্যবহারে আপনার কোনও ভুল বিস্তৃত করছে না তো বিপদের পথকে?

রান্নার শেষে অনেকেই সরাসরি সিলিন্ডারের নব বন্ধ করেন, সেখানে গ্যাস বার্নারের নব খোলাই থাকে। এতে গ্যাস ও সিলিন্ডার তাৎক্ষনিক ভাবে বন্ধ হয়ে যায় ঠিকই, কিন্তু এতে থেকে যায় সমূহ বিপদের শঙ্কা। সরাসরি সিলিন্ডারের নব বন্ধ করায় গ্যাস বেরোনোর পথ বন্ধ হয়ে গেল ঠিকই, কিন্তু বার্নারের ভিতরের গ্যাস হু হু করে বেরতে থাকে।

রান্নার গ্যাস বাতাসের চেয়ে ভারি। ফলে গ্যাস লিক করলেও তা মেঝে ও বার্নারের মুখের কাছাকাছি ঘোরাফেরা করে। এ সময় লাইটার বা দেশলাই জ্বালিয়ে গ্যাস জ্বালাতে গেলে সঙ্গে সঙ্গে আগুন লেগে যাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়। তাই বন্ধ করার সময় অবশ্যই নিয়ম মেনে আগে বন্ধ করুন গ্যাস বার্নারের নব, তার পর সিলিন্ডারের নবও।

আরও পড়ুন: ওজন নিয়ে চিন্তিত? এই কাজের জন্যই মেদ বাড়ছে না তো?

শুধু তাই-ই নয়, অনেকেই আবার বার্নার অফ করার পর সিলিন্ডার অফ করেন না। সেটিও বিপদ ডেকে আনতে পারে। সিলিন্ডারের নব খোলা রেখে সেফটি ক্যাপ না পরিয়ে রান্নাঘর থেকে বেরিয়ে আসার স্বভাব থাকলে আজই তা বদলান। রান্নার সময় সিলিন্ডারের মুখের কাছে জমে থাকা গ্যাস বার্নার বন্ধের পরেও বাইরে বেরতে থাকে। ফলে এতে গ্যাসের অপচয় যেমন হয়, তেমনই গ্যাস বেরিয়ে দুর্ঘটনা ঘটে। তবে বার্নার বন্ধ না করার অভ্যাস আরও বেশি ভয়ের।

গ্যাস সিলিন্ডার থেকে দুর্ঘটনা এড়াতে কয়েকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মাথায় রাখুন।

আরও পড়ুন: কেউ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে সঙ্গে সঙ্গে যা আপনাকে করতেই হবে

  • গ্যাসের নব বন্ধ হয়েছে কিনা দেখে তবেই রান্নাঘর থেকে বেরোন।
  • গ্যাস সিলিন্ডারের পাইপে কোথাও কোনও ছিদ্র আছে কিনা তা খতিয়ে দেখুন।
  •  অনেকেই গ্যাসের লাইটার বা দেশলাই ব্যবহারের পর তা রেখে দেন সিলিন্ডারের উপরেই। এমনটা করা একেবারেই উচিত নয়। এই দু’টি জিনিসের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখুন।
  • রান্নাঘরে ঢুকেই গ্যাসের গন্ধ পেলে তখনই বেড়িয়ে আসুন রান্নাঘর থেকে। ওই অবস্থায় কোনও সুইচ বোর্ড বা বৈদ্যুতিন সরঞ্জাম চালু করবেন না।
  • গ্যাস বন্ধ করে বেরনোর আগে দেখে নিন সিলিন্ডারের পাইপ যেন কোনও ভাবে গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে।

  •  পাইপ পরিষ্কার রাখতে গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনও কাপড় বা প্লাস্টিক মুড়ে রাখেন? এমনআর ভুলেও করবেন না। এতে পাইপে কোনও ছিদ্র হলে বা গ্যাস লিক করলে সহজে বোঝা যাবে না।
  • সাবান দিয়ে গ্যাসের পাইপ ব্যবহার করেন?এ ভুল শুধরে গ্যাস পরিষ্কার করতে শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন। খুব নোংরা হলে হালকা করে জলে ভিজিয়ে ভাল করে নিংড়ে নিন কাপড়, তার পর সেই কাপড়ে পরিষ্কার করুন পাইপ। সাবানের ফেনা বা জল কোনও ভাবে গ্যাসের সঙ্গে মিশে গেলে তা থেকে মারাত্মক বিপদ ঘটতে পারে।
  • গ্যাসের পাইপটির গায়ে বা সিলিন্ডারে ‘আইএসআই’ চিহ্ন আছে কিনা তা পরখ করে নিন। এমন না থাকলে পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাকে ফেরত দিন সেই সিলিন্ডার। (গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন