• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

এই বর্ষায় জ্বর, সর্দি-কাশিকে ভয়? এ সব মশলার জাদুতে থাকুন সুস্থ

spices
মশলায় কাবু করুন বর্ষার অসুখ। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

বর্ষা মানেই কেবল জল-কাদায় জেরবার নয়, বরং অনেক মরসুমি অসুখের বাড়বাড়ন্ত হওয়ার ঋতু। বৃষ্টির জলের ক্ষতিকর ব্যাকটিরিয়াই ডেকে আনে নানা রোগ। ঠান্ডা লাগা, ভাইরাল ফিভারের হাত ধরেই এই ঋতুতে বেড়ে যায় বদহজম, পেটের সমস্যাও।

শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলে এই ধরনের রোগের প্রকোপও বাড়ে। কিন্তু রোজের ব্যস্ততা কমে না একটুও। তাই এই সময় সুস্থ থাকতে হলে খাওয়াদাওয়ার উপরও বিশেষ নজর দিতে হয়। বর্ষাকালে সংক্রমণ এড়াতে বিভিন্ন মশলা কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কোন কোন মশলা রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে জানেন?

রইল তেমন কিছু মশলার হদিশ, যা প্রতি দিন রান্নায় ব্যবহারে কমতে পারে মরসুমি অসুখ। শরীরকে তাজা ও সুস্থ রাখতে মেনে চলুন সে সব মশলা ব্যবহারেরও কিছু নিয়ম।

আরও পড়ুন: সামনেই ফ্রেন্ডশিপ ডে, রইল পকেটসই উপহারের সন্ধান

হলুদ: হলুদে বরাবর আস্থা রেখেছে ভারতীয় আয়ুর্বেদ। প্রতি দিন সকালে খালি পেটে চিবিয়ে খান কয়েক কুচি কাঁচা হলুদ। চামড়ার চাকচিক্য, সুস্থ লিভার, উন্নত হজমশক্তি— সব কিছুকেই সাহায্য করে এই মশলা। এমনিতেই সময়ের অভাবে রান্নায় দোকানের প্যাকেটবন্দি হলুদের উপর ভরসা করতেই হয় আমাদের। তাই কাঁচা হলুদ খাদ্যতালিকায় রাখলে কাজে আসবে তা। রান্নাতেও রোজ ব্যবহার করুন ভাল হলুদগুঁড়ো। ঠান্ডা লাগার সমস্যা থাকলে এক গ্লাস দুধে কয়েক চিমটে হলুদ ফেলে খেলে কমবে সেটাও।

কাঁচা হলুদের গুণে দূরে থাকুক অসুখ। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

হিং: অ্যান্টি ভাইরাল হিসাবে চিকিৎসকরাও ভরসা করেন হিংয়ের উপর জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ সুবর্ণ গোস্বামীর মতে, ঠিক পরিমাণে রান্নায় হিং ব্যবহার করলে তা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, পেটের নানা সমস্যাতেও কাজে আসে এই মশলা। তবে অতিরিক্ত কোনও মশলাই ভাল নয়। সে দিকেও খেয়াল রাখতে হবে বইকি!

আরও পড়ুন: মানসিক চাপে বিপর্যস্ত? ওষুধ ছাড়াই উড়িয়ে দিন এ সব উপায়ে

মেথি: মেদ কমানো থেকে অ্যান্টি ভাইরাল— সবেতেই মেথি খুব কার্যকর। মেথিতে রয়েছে ভিটামিন সি, ভিটামিন কে। মেথি ভেজানো জল রক্তে শর্করার পরিমাণকেও নিয়ন্ত্রণ করে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি এবং বর্ষাকালে জ্বর ও বিভিন্ন সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পেতে মেথি দিয়েই বানান নানা খাবার।

গোল মরিচ: মুখের কোনও সংক্রমণ বা পেটের সমস্যা, গোল মরিচ গুঁড়ো খুব উপকারী। গোল মরিচে আছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, রক্ত পরিশুদ্ধ করতেও সাহায্য করে তা। নানা খাবারের সঙ্গে মশলা চা-ও বানাতে পারেন গোল মরিচের সাহায্যে।

গোল মরিচ দিয়ে চা খান, ঠান্ডা লাগবে না। ছবি: পিক্সঅ্যাবে।

দারুচিনি: প্রচুর ম্যাঙ্গানিজ, ক্যালসিয়াম, ফাইবার এবং আয়রন সমৃদ্ধ এই মশলা কেবল রান্নায় স্বাদ-গন্ধই বাড়ায় না, এটি জীবাণুনাশক হিসাবেও কার্যকরী। বৃষ্টি ভিজে এলে দারুচিনি দেওয়া চা খেলে ঠান্ডা লাগার প্রকোপ অনেকটাই কমে বলে চিকিৎসকদের অভিমত।

লবঙ্গ: ইউগেনল সমৃদ্ধ লবঙ্গ রক্ত পরিশুদ্ধ রাখে। শরীরে সংক্রমণের ঝুঁকি কমায় এবং শরীরে ক্ষতিকারক ব্যাকটিরিয়ার সঙ্গে লড়াই করার ক্ষমতা রাখে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন