×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৬ মে ২০২১ ই-পেপার

নেটফ্লিক্স-চর্চায় পিছিয়ে নাকি? দেখে নিন এই পাঁচটি সিরিজ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৭:০৩
‘ব্রিজার্টন’ সিরিজের দৃশ্য।

‘ব্রিজার্টন’ সিরিজের দৃশ্য।

ডিউক অব হেস্টিংসের কথা কানে এসেছে? সেরিনা ভ্যান্ডার উডসনের মতো সাজতে চেয়েছে নাকি স্কুলপড়ুয়া মেয়ে? জানেন তো তাঁরা কারা? এখনও না চিনে থাকলে নিশ্চয়ই মাঝেমাঝে অনলাইন আড্ডায় গিয়ে মুশকিলে পড়ছেন? হাতে সময় থাকলে নেটফ্লিক্স খুলে এই পাঁচটি সিরিজ দেখে ফেলুন। জেনে নিন সেই চরিত্রদের, যারা এখন কথায় কথায় উঠে আসছে মিম, টুইট কিংবা হাল্কা আড্ডায়।

ব্রিজার্টন

গত জানুয়ারি মাসে সবে এর প্রথম মরসুমটি মুক্তি পেয়েছে নেটফ্লিক্সে। ফেব্রুয়ারি পড়ার আগেই হইহই রব। এমন সফল সিরিজ না কি একটিও হয়নি এর আগে। ১৯ শতকের ব্রিটেনের পারিবারিক গপ্পো, তাতেই মজেছে দেশ-বিদেশের দর্শকের মন। আসলে তার চেয়েও বেশি আলোরণ সৃষ্টি করেছে এক মনের মতো স্বামীর চরিত্র। তারই নাম ডিউক অব হেস্টিংস। সুদর্শন প্রেমিক পুরুষ, সঙ্গে আবার বিপুল অর্থের মালিক তিনি। আর কি আলোচনায় না থেকে পারে ‘ব্রিজার্টন’! নানা বয়সের মহিলাদের আড্ডায় যত্রতত্র ঢুকে পড়ছেন এখন সাইমন নামের সেই ডিউক। ‘আমার ডিউক অব হেস্টিংস কবে আসবে?’— এমন পোস্টে ছেয়ে গিয়েছে নেট জগৎ।

Advertisement



দ্য ক্রাউনরাজা-রানির গপ্পো কোনও কালেই পুরনো হয় না। আর তা যদি হয় ক্ষমতায় বহাল এক রানির জীবনের ভাল-মন্দের কথা, সঙ্গে বিশ্ব-রাজনীতির না জানা বা অর্ধেক জানা তথ্য— তবে আর কে আটকায় তাকে? নেটফ্লিক্সে ডিউকের আগমেনর অনেক আগে থেকেই পারিবারিক নাটকের টানে বেশির ভাগ মানুষ এই সিরিজেই মন দিয়েছিলেন। আপনার আশপাশের অনেকেই নিশ্চই মুখস্ত বলতে পারেন চারটি মরসুমের গপ্পো। ফলে মার্গারেট না এলিজাবেথ, কোন বোন আপনার প্রিয়, ঠিক করে নিন এ বার।



শিটস্‌ ক্রিক‘টুইট মি অন ফেসবুক’! নিশ্চই কানে এসেছে কোনও না কোনও আড্ডায়? সেই কথায় হাসতে হলে দেখে ফেলুন গত বছরের শেষের দিকে নেটফ্লিক্সে উপস্থিত হওয়া কানাডার এই টেলি-সিরিজটি। ‘ময়রা রোজ’ নামের এক চরিত্র ও তাঁর পরিবারের এই গপ্পো নিয়ে মিম আর টুইটের বন্যা এখনও নেট-মাধ্যমে। আমেরিকার ছোট শহরের জীবন এবং সেখানকার উচ্চবিত্তদের নিয়ে মজা করে তৈরি এই গল্পের কখনও দর্শকের অভাব হয়নি। আপনার বন্ধুবান্ধবেরাও নিশ্চয়ই কথায়-কথায় এঁদের উল্লেখ করে থাকেন। দেখলে বুঝতে পারবেন সে সব মজা।



এমিলি ইন প্যারিস

কুইন ছবিটি দেখেছিলেন? মনে হয়েছিল না প্যারিস শহরটি আরও একটু দেখতে পারলে ভাল হয়? দশটি ভাগে ভাঙা এই গল্পে তা বেশ ভাল করে দেখতে পাবেন। একটি মরসুমেই অনেকের নজর কেড়েছে এই সিরিজ। এখন তো একা একা ঘুরে বেড়ানোর চল হয়েছে বেশি, ফলে অনেক মেয়েরাই বেশি করে দেখছেন এমিলি নামক এই মার্কিনি তরুণীর পারী-অভিযান। প্যারিস শহরে গিয়ে কী ভাবে একা-একা নিজের জীবন গড়লেন সেই এমিলি, তা দেখে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে নানা ধরনের পরিবারেই। এমিলির মতো কিছু করে ফেলতে হবে, সে কথাও ঘুরছে হাওয়ায়।



গসিপ গার্ল

এই সিরিজটি কিন্তু মোটেই নতুন নয়। কিন্তু এমিলিই যেন ফিরিয়ে এনেছেন এককালের অতি জমপ্রিয় এই মার্কিনি টিভি-শোকে। নিউ ইয়র্ক শহরের গল্প। ম্যানহাটন এলাকার উচ্চবিত্ত পরিবারের কিশোর-কিশোরীরাই এর কেন্দ্রে। দুই বন্ধু ‘সেরেনা ভ্যান্ডার উডসন’ আর ‘ব্লেয়ার ওয়ালডর্ফ’-কে নিয়ে মুগ্ধ এমিলি, কথায় কথায় লোককে সেই সিরিজের চরিত্রদের উদাহরণ দেন। গল্পে-আড্ডায় আরও আরও ঢুকে পড়ে গসিপ গার্লের চরিত্ররা। স্কুলপড়ুয়া ছেলেমেয়ের সাজ, বা পার্টির ধরন অচেনা ঠেকলে অবশ্যই এক বার দেখে নিনি এই শো। হতেই পারে, না মেলা সমীকরণটা মেলাতে সহজ হবে।

নেটফ্লিক্সে এই পাঁচটি সিরিজ দেখে একটা ‘ক্র্যাশ কোর্স’ করে নিন। দেখবেন আড্ডাগুলো একটু সহজ ঠেকছে!

Advertisement