শীত কাটতেই গা ঝাড়া দিয়েছে পিঁপড়ের দল। চিনির কৌটো থেকে শুরু করে বাড়ির আনাচে কানাচের কোনও ছিদ্র, কোনও জায়গাই পিঁপড়ের হামলা থেকে মুক্ত নয়। চিনির কৌটোকে পিঁপড়ের হাত থেকে বাঁচাতে না হয় বায়ুনিরোঝক পাত্র বা প্যাকেটে পুরে রাখলেন, কিন্তু ঘরের কোণায় কোণায় পিঁপড়ের হানা রুখবেন কী করে?

বাজারচলতি রিঁপড়ে মারার বিষ বা স্প্রে তে প্রচুর ক্ষতিকর রাসায়নিক থাকে। বাড়িতে শিশুরা থাকলে তা ব্যবহারেও নানা সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়। অনেকের আবার এই ধরনের স্প্রে-তে অ্যালার্জিও হয়। পেস্ট কন্ট্রোলের ক্ষেত্রে খরচও বেশি ও স্থায়ী সমাধানও হয় না।

তা ছাড়া যে কোনও প্রাণীকেই প্রাণে মেরে না ফেলে যদি  তাড়িয়ে দিতে পারলেই সমস্যার সমাধান হয়ে যায়, তা হলে মন্দ কী! জানেন কি, ঘরোয়া কোন কোন উপায়ে অবলম্বন করলে পিঁপড়ে মোটেই ঘেঁষবে না বাড়িতে?

আরও পড়ুন: খুশকি থেকে অকালে টাক পড়া, ঘরোয়া এই এক উপাদানেই বাজিমাত!

তেজ পাতা: পিঁপড়ের আনাগোনা বেশি এমন জায়গায় তেজ পাতা গুঁড়ো করে ছড়িয়ে দিন। গরম তাওয়ায় শুকনো করে ভেজে নিলে তেজ পাতা গুঁড়ো করতে সুবিধা হবে। একান্তই তা পারলে, কয়েক টুকরো তেজ পাতা কুঁচিয়ে ছড়িয়ে দিন ওই সব জায়গায়। পিঁপড়ে তেজ পাতার গন্ধ সহ্য করতে পারে না। ফলে সমস্যা এড়ানো সহজ হবে।

দারচিনি ও লবঙ্গ: চিনির পাত্র থেকে পিঁপড়ে তাড়াতে কয়েকটা লবঙ্গ রেখে দিলেও কাজ হয়। একই কাজ করতে পারেন পিঁপড়ে আক্রান্ত অঞ্চলেও। লবঙ্গ ও দারচিনির গুঁড়ো কিংবা গোটা দারচিনি ও লবঙ্গ ছড়িয়ে দিন সে সব জায়গায়। সহজেই দূর হবে পিঁপড়ে। তবে দিন কয়েক বাদে বাদে গন্ধ কমে এলেই বদলে ফেলুন এ সব।

আরও পড়ুন: ডেঙ্গির ভয়? অণুচক্রিকা বাড়াতে পাতে রাখুন এ সব

লেবুর খোসা: লেবুর গন্ধ পিঁপড়েদের ঘোরতর অপছন্দ। তাই তাদের ঘায়েল করতে লেবুর খোসার শরণ নিন। এক টুকরো খোসা রেখে দিন চিনির পাত্রে বা পিঁপড়ে আছে এমন জায়গায়। গন্ধ কমলে বদলে দিন। এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে সহজেই পরিত্রাণ মিলবে পিঁপড়ের হাত থেকে।