জামাই আদরে পাতে যদি তুলে দিতে পারেন কলকাতার নামী রেস্তরাঁর দু’-দু’টো ইলিশের পদ, তা-ও আবার তাদের রেস্তরাঁর রেসিপি মেনেই, তা হলে নির্ঘাত হাসি ফুটবে জামাইবাবাজির মনে। দেখে নিন এক ঝলকে সেই রেসিপি।

টক-ঝাল ইলিশ (‘বিজলি গ্রিল’ )

উপকরণ

নুন-হলুদ মাখানো ইলিশ মাছ, লম্বা করে কেটে রাখা বেগুন ও কুমড়ো, কাঁচা আম, সেদ্ধ করে বের করে রাখা কাঁচা আমের শাঁস, সরষের তেল, কালোজিরে, আদা বাটা, শুকনো লঙ্কা, কাঁচা লঙ্কা, নুন, হলুদ, পাঁচফোড়ন পাউডার, সরষে বাটা, চিনি।

প্রণালী        

প্রথমে কড়ায় তেল দিয়ে ভেজে নিন ইলিশ মাছ। এ বার মাছ নামিয়ে সেই তেলেই কালোজিরে ফোড়ন দিন। ফোড়নের মধ্যেই যোগ করুন শুকনো লঙ্কা। এ বার লম্বা করে কেটে রাখা কাঁচা আম, বেগুন আর কুমড়ো যোগ করে নাড়তে থাকুন যত ক্ষণ না ভাজা ভাজা হয়ে যায়। এর পর এতে যোগ করুন নুন-হলুদ আর আদা বাটা ও পাঁচফোড়ন পাউডার (না দিলেও ক্ষতি নেই)। ভাল করে কষতে থাকুন মশলা। এর পর জল বেরিয়ে এলে তাতে দিন কাঁচা আমের শাঁস। মাখো মাখো হলে হালকা চিনি মিশিয়ে আরও একটু কষে জল ঢালুন। এ বার জল খানিক ফুটলে তাতে ছেড়ে দিন ভেজে রাখা ইলিশ মাছ। জল কতটা রাখতে চান, তার উপর নির্ভর করে ফুটতে দিন। নামানোর আগে দু’চামচ সরষে বাটা ছড়িয়ে ২ মিনিট রেখে নামিয়ে দিন। তা হলেই তৈরি টক-ঝাল ইলিশ।

কেবল ‘বিজলি গ্রিল’ কেন, বাড়ির রান্নাঘরেই উপভোগ করতে পারেন ‘ভজহরি মান্না’-র নিয়ম মেনে বানানো মালাই ইলিশও।

মালাই ইলিশ (ভজহরি মান্না)

মালাই ইলিশে জমে যাক এ বারের জামাইষষ্ঠী।

উপকরণ

নুন-হলুদ মাখানো ইলিশ মাছ, সাদা সরষে, পোস্ত বাটা, নারকেলের দুধ, টক দই, কাঁচা লঙ্কা বাটা, নুন, চিনি, ফ্রেশ ক্রিম, সরষের তেল।

প্রণালী

কড়ায় তেল গরম করে ইলিশ মাছ ভেজে রাখুন। সেই তেলেই সাদা সরষে, পোস্ত বাটা, নারকেলের দুধ, কাঁচা লঙ্কা বাটা ও টক দই মিশিয়ে নাড়তে থাকুন, হালকা কষে নিন এই মিশ্রণ। যোগ করুন নুন, হলুদ ও অল্প চিনি। এর পর জল দিয়ে ফুটতে দিন। জল ফুটে এলে যোগ করুন ভেজে রাখা ইলিশ। দু’-তিন মিনিট কড়ায় রেখে, ফ্রেশ ক্রিম মিশিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন গরম ভাতের সঙ্গে।

ছবি: মৃণাল কান্তি হালদার