• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঘুরতে গিয়েছিলেন প্রেমিকের সঙ্গে, বাড়ি ফিরে অপহরণের গল্প ২১ বছরের যুবতীর!

inamsjksj
অপহরণের গল্প ফাঁদলেন যুবতী। প্রতীকী ছবি।

কলেজের ক্লাস শেষ করে স্বেচ্ছায় প্রেমিকের সঙ্গে গিয়েছিলেন ঘুরতে। কিন্তু বাড়িতে জানাতে চাননি সে কথা। তাই ফিরে বাড়ির লোকের সামনে অপহরণের গল্প ফাঁদেন। বাবা-মা পুলিশের দ্বারস্থ হতেই সামনে আসে প্রকৃত তথ্য। সম্প্রতি এ রকমই ঘটনা ঘটিয়েছেন নাগপুরের ২১ বছরের এক কলেজ ছাত্রী।

গিত্তিখাদান পুলিশ স্টেশনের ইনস্পেক্টর সুনীল গাঙ্গুরে বুধবার জানিয়েছেন, সোমবার রাত ৮টার সময় ২১ বছরের ওই যুবতী  তাঁর বাবা-মায়ের সঙ্গে থানায় আসেন। তাঁরা অপহরণের অভিযোগ করেন। ওই যুবতীর মা-বাবা জানান, কলেজ যাওয়ার পথে চার ব্যক্তি তাঁকে জোর করে গাড়িতে তুলে নির্জন জায়গায় নিয়ে যান। সেখান থেকে কোনও মতে পালিয়ে আসেন ওই যুবতী।

‘কিসি কে বাপ কা হিন্দুস্তান থোড়ি হ্যায়’, সিএএ-এনআরসি নিয়ে প্রতিবাদের অস্ত্র হচ্ছে এই লাইন আরও পড়ুন

ঘটনার তদন্ত করতে নামে নাগপুর ক্রাইম ব্রাঞ্চ। যেখান থেকে অপহরণের কথা বলেছিলেন সেখানে ওই যুবতীকে নিয়ে যান তদন্তকারীরা। কিন্তু ওই যুবতীর বক্তব্য প্রচুর অসঙ্গতি ধরা পড়ে। তা শুনে সন্দেহ হওয়ায় কলেজের কাছে থাকা সিসিটিভির ফুটেজ দেখেন তদন্তকারীরা। সেই সিসিটিভি ফুটেজেই ধরা পড়ে ওই যুবতী এক ব্যক্তির মোটরসাইকেলে চেপে গিয়েছিলেন কলেজ থেকে।

ওই ইনস্পেক্টর বলেছেন , ‘‘সেই সিসিটিভি ফুটেজ আমরা পরিবারের লোকের সামনে তুলে ধরি। এর পর অপহরণের গল্প ফাঁদার কথা স্বীকার করে নেন ওই যুবতী। তদন্তে দেখা যায়, নিজের প্রেমিকের সঙ্গে নাগপুর শহরের বাইরে ঘুরতে গিয়েছিলেন ওই যুবতী। সেই প্রেমিকই তাঁকে বাড়িতে নামিয়ে দিয়ে যায়।’’

এর পর না বলে যাওয়ার ও মিথ্যা গল্প ফাঁদার জন্য বাড়ির লোক ধমক দেন দ্বিতীয় বর্ষের ওই ছাত্রীকে। তরুণী ভেবেছিলেন, তাঁর গল্প বিশ্বাস করবে বাড়ির লোক। কিন্তু তাঁরা পুলিশের কাছে আসতেই সত্যি সামনে আসে। ওই পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে কোনও মামলা দায়ের করা হয়নি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন