• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আবর্জনা পরিষ্কার করতে নিজেই নর্দমায় নেমে পড়লেন বিজেপি কাউন্সিলর

Corporetor
ম্যানহোলে নামছেন কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

পুরসভার ওয়ার্ডের নর্দমায় জমা আবর্জনা পরিষ্কার করতে নিজেই নেমে পড়লেন এক বিজেপি কাউন্সিলর। কর্নাটকের কাদ্রি-কাম্বালার ঘটনা। সেই ছবি ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

টুইটে কয়েকটি অ্যাকাউন্ট থেকে এই ছবি পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, বর্ষার জল বেরিয়ে যাওয়ার জন্য রাস্তার নীচে যে নিকাশি ব্যবস্থা থাকে তার ম্যানহোলের ঢাকনা খুলে নামছেন এক ব্যক্তি। তিনি ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মনোহর শেট্টি। বুধবার এই দৃশ্য দেখা গিয়েছে।

সম্প্রতি বৃষ্টিতে ওই নর্দমাগুলি আবর্জনায় বন্ধ হয়ে যায়। ফলে জল বেরিয়ে যেতে সমস্যা হচ্ছিল। রাস্তায় জল জমে যাওয়ায় পথচারীদের এবং গাড়ি চলাচলেও অসুবিধা হচ্ছিল। ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাফাই কর্মীদের ডেকে পাঠান স্থানীয় কাউন্সিলর। কিন্তু এই বর্ষার মধ্যে তাঁরা নর্দমায় নামতে রাজি হননি। শেষে বাধ্য হয়ে কাউন্সিলর মনোহর সিদ্ধান্ত নেন তিনিই নেমে সাফাইয়ের কাজে হাত লাগাবেন। যেমন ভাবা তেমন কাজ।

আরও পড়ুন: আট মাসের শিশুকে কেউ এ ভাবে সুইমিং পুলে ফেলে দিতে পারে!

মনোহর একাই নেমে পরিষ্কারের চেষ্টা করেন। কিন্তু বেশ কয়েক বারের চেষ্টাতেও সফল হননি। শেষে পুরসভার একটি শক্তিশালী যন্ত্র আনা হয়। কিন্তু সেটি দিয়েও কাজ হয়নি। ভিতরে নেমে যন্ত্রটির পাইপ ঠিক মতো জায়গায় রাখার দরকার ছিল। কিন্তু সেই যন্ত্রের অপারেটর নিজেও নামতে রাজি হননি সেখানে। তাঁর বক্তব্য, নীচে নেমে এভাবে কাজ করার এক্তিয়ার নেই তাঁর। শেষে কাউন্সিলর মনোহর নিজেই আর একবার নামেন। তবে এবার তাঁর সঙ্গে আরও কয়েক জন সাফাই কর্মী আট ফুট গভীর, অন্ধকার ম্যানহোলে। তার পরই যন্ত্রটি কাজ করে।

আরও পড়ুন: ‘আবদার’ মেনে অ্যামাজনের ডেলিভারি দিতে আসা মহিলাকে কী করতে হল দেখুন

মনোহর জানিয়েছেন, এটাই তাঁর প্রথম এমন কাজ নয়। তিনি আরও বলেন, দরিদ্র কর্মীদের তিনি জোর করতে পারেন না এমন ঝুঁকি-পূর্ণ কাজের জন্য। যদি কোনও দুর্ঘটনা হয় তবে কে তার দায় নেবে? তাই তিনি নিজেই এই কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন।

দেখুন সেই পোস্ট:

নেটাগরিকরা এক জন কাউন্সিলরের এমন কাজের অকুণ্ঠ প্রশংসা করেন। এখনকার দিনে তিনি অন্যদের কাছে উদাহরণ হয়ে থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন