• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সংসদে জয়ার বক্তব্যের জের, নিরাপত্তা বাড়ল বচ্চন পরিবারের

Amitabh Bachhan and Jaya Bachchan
‘জলসা’র নিরাপত্তা বাড়াল মুম্বই পুলিশ।

বলিউডে মাদক চক্র যোগ নিয়ে অভিযোগের প্রতিবাদে গতকাল সংসদে ফেটে পড়েছিলেন জয়া বচ্চন। তা নিয়ে সংসদের ভিতরে তো বটেই, সোশ্যাল মিডিয়াতেও আক্রমণের মুখে পড়েন সমাজবাদী পার্টির ওই সাংসদ। তার জল অনেকদূর গড়াতে পারে— এই আশঙ্কায় বুধবার আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিল মুম্বই পুলিশ। বচ্চন পরিবারের জন্য বিশেষ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।  জুহুতে অমিতাভ বচ্চনের বাংলো ‘জলসা’র বাইরে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশকর্মী।

সংসদের বাদল অধিবেশনের শুরুর দিনেই বলিউডে মাদক চক্রের অভিযোগ তুলে বিতর্ক উস্কে দিয়েছিলেন হিন্দি ভোজপুরি চলচ্চিত্রের অভিনেতা তথা বিজেপি সাংসদ রবি কিষণ। মাদক চক্রের পিছনে পাকিস্তান, চিনের যোগ থাকতে পারে বলেও দাবি করেছিলেন তিনি। সেই বক্তব্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সংসদে সরব হন জয়া বচ্চন। বলেন, ‘‘কয়েকজন লোকের জন্য গোটা বলিউডের ভাবমূর্তি নষ্ট করা উচিত নয়। সিনেমার জগৎ থেকে আসা এক সাংসদ লোকসভায় বলিউড সম্পর্কে যে কথা বলেছেন, তাতে আমি লজ্জিত। এঁরা যে থালায় খাচ্ছেন, সেটাতেই ছিদ্র করছেন।’’ তিনি আরও অভিযোগ করেন, দেশের বেহাল অর্থনীতি এবং বেকারত্ব থেকে নজর ঘোরাতেই বলিউডে মাদক চক্রের অভিযোগ নিয়ে বিজেপি নেতারা হইচই শুরু করেছেন।

জয়ার ওই মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া আসে বিভিন্ন দিক থেকে। অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই সরব অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। জয়ার মন্তব্যের পাল্টা হিসাবে সেই কঙ্গনা প্রশ্ন তোলেন, যদি জয়া বচ্চনের ছেলের কিংবা মেয়ের ক্ষেত্রে এই ধরনের ঘটনা ঘটতো তা হলে তিনি কি এমন কথা বলতে পারতেন? সোশ্যাল মিডিয়ায় জয়ার পক্ষে দাঁড়িয়েছেন অনেকেই। তবে তাঁর মন্তব্যকে ঘিরে সমালোচনার ঢেউও উঠেছে। টুইটারে লকেট চট্টোপাধ্যায় জয়াকে আক্রমণ করে লেখেন, ‘‘পালঘরে সাধুদের হত্যার ঘটনার সময়ে কিংবা নৌ বাহিনীর প্রাক্তন আধিকারিকের উপর আক্রমণের সময়ে জয়া বচ্চন কোথায় ছিলেন? সুশান্ত সিংহ রাজপুতকে বলিউডের মাফিয়াদের বলি হতে হয়েছে। সেই সময়েও কোথায় ছিলেন তিনি?’’ জয়াকে নিশানা করে আক্রমণের পালায় সেখানেই ছেদ পড়েনি। কারণ, ইতিমধ্যেই টুইটারে #শেমঅনজয়াবচ্চন ট্রেন্ডিং হয়ে উঠেছে। এই পরিস্থিতির উপর নজর রেখেই ‘জলসা’র নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুন: মস্কো বৈঠকের আগে ১০০-২০০ রাউন্ড গুলি চলেছিল প্যাংগংয়ে, সামনে এল আরও বড় ঘটনা

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের অবশ্য মত, বলিউডের মাদক যোগ তত্ত্বের প্রতিবাদে সংসদে জয়া বচ্চন যে অবস্থান নিয়েছেন তাতে তাঁর পাশে দাঁড়ানোর বার্তাই দিচ্ছে মহারাষ্ট্রের জোট সরকারের অন্যতম শরিক শিবসেনা। তার কারণ, শিবসেনার দলীয় মুখপত্র ‘সামনা’য় বিজেপি সাংসদ রবি কিষণের ‘বলিউডে মাদক চক্রের যোগ’ মন্তব্যের জবাব দেওয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ‘‘যাঁরা এই দাবি করছেন তাঁরা ভণ্ড এবং দ্বিচারিতায় পরিপূর্ণ। যাঁরা বলেন, বলিউডের সব অভিনেতা এবং প্রযুক্তিবিদ মাদকের ঘোরে রয়েছেন তাঁদেরই ডোপ টেস্ট করা উচিত।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন