• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রশান্ত কিশোরকে জেডিইউ-তে নিতে অমিত শাহ ফোন করেছিলেন নীতীশকে!

Prashant, Nitish and Amit
প্রশান্ত কিশোর, নীতীশ কুমার এবং অমিত শাহ।

প্রশান্ত কিশোরকে জেডিইউতে নিতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে দু’বার টেলিফোনে অনুরোধ করেছিলেন। গত রাতে পটনায় এবিপি নিউজের ‘বিহার শিখর সম্মেলন’ নামের অনুষ্ঠানে এক সাক্ষাৎকারে এমন কথাই জানিয়েছেন নীতীশ। তিনি বলেন, ‘‘অমিত শাহ আমাকে প্রশান্তকে দলে নিতে দু’বার অনুরোধ করেছিলেন। প্রশান্ত আমাদের কাছে নতুন ছিলেন না। ২০১৫ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তিনি আমাদের সঙ্গে কাজ করেছিলেন। মাঝে বাকি সময়ে তিনি অন্যত্র ব্যস্ত ছিলেন। ফিরে এসেছেন।’’ গত ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন প্রশান্ত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর অন্যতম ক্যাম্পেন ম্যানেজার হিসেবে উঠে আসে তাঁর নাম। স্বাভাবিক ভাবেই তাঁকে রাজনীতিতে টানতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ।

গত সেপ্টেম্বরে জেডিইউতে যোগ দেন প্রশান্ত কিশোর। তার আগে পটনায় নীতীশ কুমারের সঙ্গে দেখা করেছিলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। দু’জনে একান্তে প্রায় ৪৫ মিনিট বৈঠক করেছিলেন। সেখানে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে আলোচনা হয়েছিল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। গত বছর অক্টোবরে দলের সহ সভাপতি হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। পটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেন তিনি। আরএসএস প্রভাবিত ছাত্র সংগঠন এবিভিপিকে দীর্ঘদিন পরে পটনা বিশ্ববিদ্যালয়ে হারিয়ে ছাত্র সংসদ সভাপতি পদে জেডিইউকে জেতান তিনি। এই প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ে জেতে জেডিইউ। লোকসভা নির্বাচনের বছরে দলের সঙ্গে যুবকদের জুড়তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন তিনি।

২০১৪ সালে নরেন্দ্র মোদী এবং ২০১৫ সালে নীতীশ কুমারের হয়ে কাজ করার পাশপাশি ২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশ ও পঞ্জাবে কংগ্রেসের হয়ে কাজ করেন তিনি। অখিলেশ যাদব এবং রাহুল গাঁধীকে এক মঞ্চে নিয়ে আসেন প্রশান্ত। বারাণসীতে সনিয়া গাঁধীর রোড শো করার পিছনে তাঁর ভূমিকা ছিল অন্যতম। যদিও উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে সফলতা পাননি প্রশান্ত। তবে পঞ্জাবে অমরিন্দর সিংহ জিতেছিলেন। এর পরে দক্ষিণ ভারতে কিছুদিন জগন রেড্ডির হয়ে কাজ করেন তিনি। তার পরেই ফিরেছেন বিহারে।

আরও পড়ুন: মায়াবতীর পাশের এই যুবক কি উত্তরাধিকারী? জানেন ইনি কে?

আরও পড়ুন: সিবিআই প্রধানের পদে রাওয়ের নিয়োগ চ্যালেঞ্জ সুপ্রিম কোর্টে, শুনানি আগামী সপ্তাহে

২০১৯ সালের নির্বাচনে প্রশান্তের হাত ধরে বড় সফলতার আশা করছে বিজেপি-জেডিইউয়ের এনডিএ জোট। সে কারণেই সোজাসুজি না হলেও অমিত শাহের কথাতেই এনডিএ-এর কাজে ফিরেছেন প্রশান্ত। তাঁর কথাতেই প্রশান্তকে দলে নিয়েছেন নীতীশ। এখন দেখার কতটা সফলতা পান প্রশান্ত!

(ভারতের রাজনীতি, ভারতের অর্থনীতি- সব গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদেরদেশবিভাগে ক্লিক করুন।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন