আগামী ২৮ নভেম্বর মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার নির্বাচন। চতুর্থ বারের জন্য ক্ষমতায় আসতে মরিয়া শাসক বিজেপি। অন্যদিকে বিজেপির টানা জয়ের দৌড়ে লাগাম পরাতে তৎপর কংগ্রেসও। কংগ্রেস বনাম বিজেপি, এই দ্বিমুখী লড়াইয়ের দিকেই নজর সারা দেশের। যদিও কংগ্রেস ও বিজেপিকে পেছনে ফেলে আপাতত প্রচারের আলো কেড়ে নিলেন এক অনামী প্রার্থী দীপক পওয়ার।

ইনদওর-তিন বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী হয়েছেন দীপক। বৃহস্পতিবার তিনি মনোনয়ন জমা দিতে গেলে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় সরকারি অফিসারদের। মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য যে টাকা লাগে তার পুরোটাই তিনি এক টাকার মুদ্রায় করে নিয়ে হাজির হন সরকারি দফতরে। অর্থাৎ তাঁর ঝুলিতে ছিল মোট দশ হাজারটি এক টাকার কয়েন।

দীপককে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, সাধারণ মানুষের দান থেকেই তিনি মনোনয়ন দাখিলের টাকা জোগাড় করেছেন। সেই টাকাই সরাসরি তিনি নিয়ে এসেছেন সরকারি দফতরে। তাঁর কিছুই করার নেই বলে হাত তুলে নেন তিনি।

আরও পড়ুন:হায়দরাবাদের নাম বদলে ভাগ্যনগর! তেলঙ্গানাতেও নাম বদলের রাজনীতি বিজেপির

এর পর বাধ্য হয়ে দশ হাজারটি এক টাকার কয়েন নিয়ে নেন রিটার্নিং অফিসার। কিন্তু তার জন্য তিনি নিয়োগ করেন পাঁচ জন কর্মীকে। পাঁচ কর্মী দেড় ঘন্টা ধরে দশ হাজার মুদ্রা গোনার পরই গ্রহণ করা হয় তাঁর মনোনয়ন।

আরও পড়ুন: ছত্তীসগঢ়ে সিআইএসএফ-এর বাসে বিস্ফোরণ, মাওবাদীদের হানায় হত ৫

দীপক পওয়ার পেশায় আইনজীবী ও স্বর্ণিম ভারত ইনকিলাব পার্টির নেতা। এই বিধানসভা নির্বাচনেই প্রথম বারের জন্য ভোটের রাজনীতিতে পা রাখছেন তিনি। ভোটে জিততে পারবেন কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ থাকলেও হেভিওয়েটদের ভিড়ে প্রচারের আলো কেড়ে নিতে অনেকটাই সফল এই প্রার্থী।

(দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরা বাংলা খবর পেতে পড়ুন আমাদের দেশ বিভাগ।)