• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘টাচ মি নট’ ফুচকা, করোনা-কালে হাতের ছোঁয়া লাগবে না বিক্রেতার

Fuchka
‘টাচ মি নট পানিপুরী’ টুইটার থেকে নেওয়া ছবি।

বাঙালির ফুচকা কোথাও পানিপুরী, কোথাও গোলগাপ্পা। নামের মতো ফুচকাওয়ালার হাতের শুচিতা নিয়েও কাহিনির শেষ নেই। অনেক মজার মজার গল্প শোনা যায়। তবে এটাও ঠিক যে ফুচকার স্বাদ হয় বিক্রেতার দু’হাতের খেলায়। বাঁ হাতে ভেঙে ডান হাতে আলুর মশলা। আর শেষে ডান হাত ফুটকা সমতে টকজলের গামলায় ডুববে। এর পরে আসবে ফুচকারসিকের বাটিতে। 

কিন্তু করোনা মহামারীর কালে হাতের ছোঁয়া নিয়েই তো যত চিন্তা। হাত মেলানোতেই যেখানে ভয়, সেখানে হাত ডোবানো টকজল নিয়ে তো আরও চিন্তা। এমন এক সঙ্কটের দিনে বুদ্ধি বার করেছেন ছত্তিসগড়ের রাইপুরের এক ফুচকাওয়ালা। ফুচকা বানানোটুকু ঠিক আছে কিন্তু টকজলের গামলায় যাতে হাত ডোবাতে না হয় তার ব্যবস্থা করেছেন। সেই ফুচকা বিক্রেতার ভিডিয়ো এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। 

আইএএস অফিসার অবনীশ শরণ প্রথম এই ভিডিয়োটি টুইট করেন। এর পর থেকেই তা ছড়াতে শুরু করে। সেই ভিডিয়োতেই অটোমেটিক ফুচকা মেশিন দেখা যাচ্ছে। এই ফুচকা বিক্রেতার কাছে আবার শুধুই টকজল নয়, নানা স্বাদের জল মেলে। টক-মিষ্টি জল থেকে ধনে-পুদিনা জল, যেমন ইচ্ছে তেমনটা পাবেন ক্রেতারা। তবে সেটা ক্রেতাকেই নিয়ে নিতে হবে। নির্দিষ্ট জায়গায় ফুচকা নিয়ে গেলেই পরিমাণ মতো পছন্দের স্বাদের জল ভরে যাবে। বিক্রেতা এর নাম দিয়েছেন— ‘টাচ মি নট পানিপুরী’।

আরও পড়ুন: এই পোশাক চলবে না, ক্লিভেজ ঢেকে ঢুকতে হল প্যারিসের মিউজিয়ামে

আরও পড়ুন: প্রেমিকা পদে কর্মখালি, পাত্র চিকিৎসক, বেতন পারফরম্যান্স দেখে

দেখুন সেই ভিডিয়ো:

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন