• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

প্রেমিকা পদে কর্মখালি, পাত্র চিকিৎসক, বেতন পারফরম্যান্স দেখে

Main
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

ডেটিংয়ে যাওয়ার জন্য বায়োডেটা বানানো এখন নতুন ট্রেন্ড। সেটা মন্দও নয়। আগে থেকে জেনে, বুঝে নেওয়া যায়। কিন্তু ডেটে যাওয়ার জন্য বান্ধবীর খোঁজে একেবারে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন! মালয়েশিয়াচিকিৎসক মহম্মদ নাকিব সত্যিই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। বান্ধবী পদের চাহিদাকে তিনি আবার ‘কর্মখালি’ বলে উল্লেখ করেছেন।

টুইটারে পোস্ট করা সেই বিজ্ঞাপন বড়ই মজার। প্রেমিকাকে কেমন হতে হবে শুধু সেটা জানাতে নয়, প্রেমিক হিসেবে তিনি নিজে ঠিক কেমন সেটাও বিস্তারিত জানিয়েছেন নাকিব। নিজের পছন্দ, অপছন্দ কিচ্ছুটি জানাতে বাকি রাখেননি। যাঁরা আবেদন করবেন তাঁরা কেন নাকিবকে বাছবেন সেটা একেবারে খোলাখুলিই জানিয়েছেন। আর সেই বিস্তারিত তথ্য দিতেই পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন। তার শিরোনাম— ‘আপনি কেন আমার সঙ্গে ডেটে যাবেন?’

নাকিব মহম্মদ কিন্তু বেশ সোজাসাপ্টা মানুষ। এমবিবিএস ডিগ্রি থাকলেও রান্না থেকে মিম শেয়ার করায় আগ্রহ রয়েছে তাঁর। কেকও ভালবাসেন। তবে কেক বানাতে না খেতে ভালবাসেন সেটা স্পষ্ট নয়। তবে এটা স্পষ্ট করে জানিয়েছেন যে, তাঁর অন্যতম গুণ হল, তিনি সব সময়ে হাতে একটা চকোলেট বার রাখেন। গানবাজনারও সখ আছে কিন্তু নাকিবের মা মনে করেন তিনি গানের নামে চিৎকার করেন বেশি। নিজের একটা গাড়ি আছে কিন্তু জানিয়েছেন তিনি বেশ গরিব। আইফোন থাকলেও সেটা খুব একটা দামী মডেলের নয়। দেখতেও তাঁকে ‘সুন্দর’নয় বলে দাবি করেছেন নাকিব। নিজের উচ্চতা নিয়েও খুব একটা খুশি নন। আসলে, তাঁকে প্রেমিক হিসেবে গ্রহণ করার কী কী কারণ হতে পারে সেটা জানানোর সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে বাতিল করার যাবতীয় যুক্তিও তিনি নিজেই সাজিয়ে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: প্রতিশোধ নয় প্রতিদান! যে পুলিশ বার বার জেল খাটিয়েছেন তাঁকেই কিডনি দিয়ে বাঁচালেন মহিলা

আরও পড়ুন: সাগরপারে সাবধান, এক বোতল বালি চুরির দায়ে প্রায় লাখ টাকার জরিমানা​

মনের মতো বান্ধবী পেতে চাইলেও সেটাকে কাজ বলেই মনে করেন চিকিৎসক নাকিব। টুইটারে তিনি কর্মখালির কথা বলেছেন। পদের নাম— লেডিলাভ। যোগ্যতা হিসেবে সবার আগে হতে হবে সুশিক্ষিতা। এর সঙ্গে হতে হবে পরিণত মানসিকতার এবং ঠিকঠাক টেবল ম্যানার্স জানতে হবে। এর জন্য বেতনও পাওয়া যাবে। তবে সেটা কত তা স্পষ্ট নয়। বেতন হিসেবে প্রতি মাসে যে কমিশন প্রেমিকাকে দেওয়া হবে তা নির্ভর করবে পারফরম্যান্স এবং জন্মদিনের উপহারের উপরে। এবার আসা যাক আসল কথায়। নবনিযুক্ত প্রেমিকাকে কী কী করতে হবে? না, কাজ তেমন কিছু পরিশ্রমের নয়। তবে কঠিন কিনা সেটা বলা মুশকিল। ডাক্তার নাকিব যা বলেছেন তাতে বান্ধবীকে সারাদিন মানে ২৪ X ৭ সঙ্গ দিতে হবে। আরও বড় কথা চুক্তি মেনে নাকিবের সব জোকস শুনে হাসতে হবে। প্রথম দিকে পারিবারিক অনুষ্ঠানে যেতে হবে না। সেটা কোয়ালিফাই করার পরে। সেই সময়ে আরও কিছু অতিরিক্ত কমিটমেন্টসও মিলতে পারে নাকিবের থেকে। তবে সেটা এক থেকে তিন মাস পর্যন্ত প্রবেশনে থাকার পরে ঠিক হবে। আগে এই সময়টায় ঠিকঠাক পারফর্ম করতে হবে হবু বান্ধবীকে। তার পরে পারমানেন্ট হওয়ার সুযোগ মিলবে কিনা তা অবশ্য জানানোই হয়নি।

 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন