• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিধায়ক ভাঙাতে কোটি কোটি টাকার টোপ বিজেপির: অশোক গহলৌত

gehlot
অশোক গহলৌত।

কংগ্রেস সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে কোটি কোটি টাকা দিয়ে ‘ঘোড়া কেনাবেচা’র কাজ শুরু করেছে বিজেপি। শনিবার এমনই অভিযোগ তুললেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত। তাঁর অভিযোগ, বিধায়কদের টাকার প্রলোভন দেখিয়ে দল ভারী করতে চাইছে বিজেপি। তাদের সমর্থন জানাতে বিধায়কদের ১৫ কোটি টাকা পর্যন্ত প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল বলেও এ দিন অভিযোগ করেছেন গহলৌত।

কর্নাটক এবং মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে বিজেপি কোন পথে হেঁটেছিল সে প্রসঙ্গও এ দিন তুলে ধরেন গহলৌত। সেখানেও বিজেপির বিরুদ্ধে বিধায়ক কেনাবেচার অভিযোগ উঠেছিল বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রাজ্য বিজেপির সভাপতি সতীশ পুনিয়া গহলৌতের অভিযোগ প্রসঙ্গে পাল্টা বলেন, “যে সরকার করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ, গত দেড় বছর ধরে প্রতিটি ক্ষত্রে যে সরকার অসফল, সেই সরকার যে এমনই অভিযোগ তুলবে এটাই প্রত্যাশিত। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে গিয়ে ভিত্তিহীন কথা বলছে কংগ্রেস। রাজ্যবাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করার রাজনীতি করছে।” পুনিয়া আরও যোগ করেন, “এটা আসলে কংগ্রেসের অন্তর্দ্বন্দ্বের প্রতিফলন। কী ভাবে তারা নিজেদের বিধায়কদের উপর ভরসা রাখবে!”

আরও পড়ুন: করোনা বিপর্যয় থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দেখছেন আরবিআই প্রধান

রাজ্য করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে। তাঁর সরকার যেখানে মানুষের জন্য কাজ করছে, সেখানে বিজেপি ক্রমাগত সমস্যা তৈরি করছে বলে অভিযোগ করেছেন গহলৌত। তিনি বলেন, “রাজস্থান সরকার যখন রাজ্যবাসীর জন্য কাজ করছে, এই অতিমারির পরিস্থিতিতেও বিজেপি সরকার উল্টে দেওয়ার চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে। গোটা দেশবাসীর কাছে এই বিষয়টি তুলে ধরতে চাই।” গহলৌত আরও বলেন, “শুনতে পাচ্ছি আমাদের বিধায়কদের দলবদলের জন্য টাকার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে। ২০১৪-য় জয়ের পর থেকেই বিজেপির আসল চেহারাটা সামনে এসেছে। আগে তারা রেখেঢেকে এ সব কাজ করত, এখন প্রকাশ্যেই করছে। গোয়া, মধ্যপ্রদেশ এবং উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলোয় বিজেপি কী করেছে দেখুন।” রাজস্থানেও বিজেপি সেই একই কৌশল নিচ্ছে বলে অভিযোগ গহলৌতের। এর পরই যোগ করেন, “রাজস্থানেও আগে একই রকম চেষ্টা করেছিল বিজেপি, কিন্তু যে শিক্ষা দেওয়া হয়েছে দীর্ঘ সময় মনে রাখবে তারা।” গহলৌত আরও বলেন, “বিজেপির ঔদ্ধত্য সবাই দেখছেন। আগামী নির্বাচনে এই ঔদ্ধত্য মাটিতে মিশে যাবে। দেশের মানুষ শিক্ষা দেবে বিজেপিকে।”

বিজেপির বিরুদ্ধে গত কয়েক দিন ধরেই বিধায়ক কেনাবেচার অভিযোগ তুলছিলেন কংগ্রেস নেতারা। রাজ্য কংগ্রেসের তরফে দাবি করা হয়েছে, দক্ষিণ রাজস্থানের কুশলগড়ের এক বিধায়ককে টাকার প্রস্তাব দিয়েছে বিজেপি। যদিও ওই বিধায়ক বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

গত সপ্তাহেই কংগ্রেসের মুখ্য সচেতক মহেশ যোশী এবং ডেপুটি মুখ্য সচেতক মহেন্দ্র চৌধুরী দলের ২৪ জন বিধায়কের তরফে একটি বিবৃতি জারি করে বলেন, “বিজেপির এই বিধায়ক কেনাবেচার প্রচেষ্টাকে কোনও ভাবেই সফল হতে দেবেন না।” 

২০০ আসনের বিধানসভায় ১০৭টি আসন পেয়েছে কংগ্রেস। ১২ জন নির্দল প্রার্থীর সমর্থনও রয়েছে তাদের। এ ছাড়াও রাষ্ট্রীয় লোক দল, সিপিআই(এম) এবং ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টির পাঁচ বিধায়কেরও সমর্থন রয়েছে কংগ্রেসের।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন