• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কলকাতা ফেরত পটনার যুবকের মৃত্যু, বৃদ্ধের মৃত্যু সুরাতে, মৃত বেড়ে ৭

Coronavirus
পটনা বিমানবন্দরে চলছে করোনাভাইরাসের স্ক্রিনিং। ছবি: পিটিআই

রবিবার জনতা কার্ফুর দিনে নোভেল করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল আরও তিন জনের। বিহারে এক জন, মহারাষ্ট্রের এক জন এবং গুজরাতে এক জন মিলিয়ে সারা দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল সাত। এক দিনে তিন জনের মৃত্যু দেশে এই প্রথম। আবার বিহারে এ পর্যন্ত কারও আক্রান্ত হওয়ার খবর ছিল না। ফলে প্রথম আক্রান্ত এবং প্রথম মৃত্যু বিহারে। বয়সের দিক থেকেও বিহারের মৃত যুবকই দেশের মধ্যে কনিষ্ঠতম। মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৬৩ বছরের বৃদ্ধের। গুজরাতের সুরাতে মৃত্যু হয়েছে ৬৯ বছরের বৃদ্ধের। অন্য দিকে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৪১। নতুন করে সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছে ২৬ জনের। 

বিহারের ওই যুবক সম্প্রতি কাতার থেকে কলকাতা বিমানবন্দর হয়ে বিহারে ফিরেছিলেন। মনে করা হচ্ছে, কাতার থেকেই সংক্রমণ নিয়ে ফিরেছিলেন ওই যুবক। বাড়ি ফেরার পর জ্বর, সর্দি-কাশির উপসর্গ দেখা দেওয়ায় তাঁকে পটনার এইমসে ভর্তি করা হয়েছিল। বিহারের স্বাস্থ্যসচিব সঞ্জয় কুমার জানিয়েছেন, তাঁর শরীরের নমুনা পরীক্ষায় ‘কোভিড-১৯ পজিটিভ’ ধরা পড়ে। আজ সকালেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। 

কাতার থেকে কলকাতা হয়ে বিহারে যাওয়ায় উদ্বেগ বাড়ছে কলকাতায়। রাজ্য প্রশাসনেও তৎপরতা শুরু হয়েছে বলে খবর। ওই ব্যক্তির সম্পর্কে খোঁজ খবর নেওয়া শুরু করেছে রাজ্য প্রশাসন। পাশাপাশি তিনি কলকাতা থেকে কোন পথে বিহারে গিয়েছিলেন, তা খোঁজখবর নিয়ে দেখা হচ্ছে। ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে কারা কারা এসেছিলেন তাঁদের চিহ্নিত করার প্রক্রিয়াও শুরু করেছে রাজ্য প্রশাসন। 

আরও পড়ুন: রাজপথের চেহারা হার মানাল ধর্মঘটকে, সংক্রমণ এড়াতে মরিয়া জনতা সামিল কার্ফু-এ

করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃতেরা অধিকাংশই বৃদ্ধ। কিন্তু বিহারের যুবকের বয়স ৩৮। ফলে উদ্বেগ বেড়েছে এ নিয়েও। কারণ মনে করা হচ্ছিল, করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধ ও শিশুদের জন্য বেশি ক্ষতিকারক। কিন্তু সেই বিহারের যুবকের মৃত্যুর পর সেই ধারণাও ভেঙে যেতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। 

আরও পড়ুন: দেশে মৃত্যু বেড়ে ৬, আক্রান্ত বেড়ে ৩৪১, লকডাউন বহু রাজ্যে: করোনা আপডেট এক নজরে

দেশের মধ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে মহারাষ্ট্রে। এই রাজ্যেই প্রথম মৃতের সংখ্যা একের বেশি হল। অন্য সব রাজ্যেই এক জন করে মৃত্যু হয়েছে। ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ-সহ হৃদযন্ত্রের সমস্যা নিয়ে তিনি ভর্তি ছিলেন মুম্বইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে। বৃহন্মুম্বই পুরনিগম জানিয়েছে, ওই বৃদ্ধের করোনা সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছিল। তীব্র শ্বাসকষ্টের সমস্যায় তাঁর মৃত্যু হয়েছে।’’

গুজরাতের সুরাতের একটি হাসপাতালে ৬৯ বছরের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। তাঁর কোভিড-১৯ সংক্রমণ নিশ্চিত হয়েছিল। পাশাপাশি গুজরাতেরই ভদোদরায় ৬৫ বছরের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। তাঁর করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক উপসর্গ থাকলেও রিপোর্ট এখনও আসেনি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন